বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:২৭ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

হামাস গাজার নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে, দাবি ইসরায়েলি মন্ত্রীর

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২৩
হামাস গাজার নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে, দাবি ইসরায়েলি মন্ত্রীর


জেরুজালেম, ১৪ নভেম্বর – ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে হামাস। এমন দাবিই করেছেন ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োয়াভ গ্যালান্ট। তার দাবি, বেসামরিক লোকেরা হামাসের ঘাঁটি লুট করছে।

অবশ্য নিজের এসব দাবির পক্ষে কোনও প্রমাণ হাজির করেননি তিনি। অবরুদ্ধ এই ভূখণ্ডে আগ্রাসন শুরুর প্রায় দেড় মাসের মাথায় এই দাবি সামনে আনলেন গ্যালান্ট।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

সোমবার ইসরায়েলের প্রধান টিভি স্টেশনে সম্প্রচারিত ভিডিওতে গ্যালান্ট বলেন, ‘হামাস গাজার নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে। সন্ত্রাসীরা দক্ষিণ দিকে পালাচ্ছে। বেসামরিক লোকেরা হামাসের ঘাঁটি লুট করছে। তাদের আর সরকারের প্রতি আস্থা নেই।’

অবশ্য নিজের এসব দাবির পক্ষে কোনও প্রমাণ তিনি দেননি।

প্রসঙ্গত, মুসলিমদের তৃতীয় পবিত্র ধর্মীয় স্থান আল-আকসা মসজিদের পবিত্রতা লঙ্ঘন এবং অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের অত্যাচারের জবাব দিতে গত ৭ অক্টোবর ‘অপারেশন আল-আকসা ফ্লাড’ নামে একটি অভিযান চালায় ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস।

হামাসের এই হামলায় নিহত হয়েছেন প্রায় ১২০০ ইসরায়েলি। নিহতদের মধ্যে তিন শতাধিক সেনাসদস্য রয়েছে বলে আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হয়েছে। হামাসের হামলায় আহত হয়েছেন আরও সাড়ে ৪ হাজার ইসরায়েলি। এছাড়া সেনা কর্মকর্তা ও সৈনিকসহ কমপক্ষে আরও ২৪০ জনকে বন্দি করে গাজায় নিয়ে যায় হামাস।

এরপর গত ৭ অক্টোবর থেকেই গাজায় ব্যাপক হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েলি বিমান বাহিনী। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভূখণ্ডটিতে ইসরায়েলি হামলায় নিহত ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা ইতোমধ্যেই ১১ হাজার ছাড়িয়েছে। নিহতদের মধ্যে সাড়ে ৪ হাজারের বেশি শিশু এবং ৩ হাজারেরও বেশি নারী রয়েছেন।

একইসঙ্গে গত ৮ অক্টোবর থেকে গাজায় সর্বাত্মক অবরোধও আরোপ করে রেখেছে ইসরায়েল। গাজার উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইউসেফ আবু রিশ বলেছেন, জ্বালানি সংকটের কারণে গাজার উত্তরাঞ্চলের সমস্ত হাসপাতাল বন্ধ হয়ে গেছে।

আবু রিশ বলেন, গাজার সবচেয়ে বড় আল-শিফা হাসপাতালে সাম্প্রতিক দিনগুলোতে সাত অপরিণত শিশু এবং ২৭ জন রোগী মারা গেছেন।

মূলত সংঘাতের শুরু থেকেই গাজা প্রায় সম্পূর্ণ ইসরায়েলি অবরোধের মধ্যে রয়েছে এবং খাদ্য, জ্বালানি ও অন্যান্য মৌলিক সহায়তা সরবরাহ হচ্ছে খুব সীমিতভাবে। ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতায়েহ সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং জাতিসংঘকে গাজায় ‘প্যারাসুটের মাধ্যমে সহায়তা’ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

অন্যদিকে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু মার্কিন গণমাধ্যমকে বলেছেন, গাজায় হামাসের হাতে আটক বন্দিদের মুক্ত করার জন্য একটি চুক্তি হতে পারে। কিন্তু সম্ভাব্য পরিকল্পনা নস্যাৎ হয়ে যাওয়ার ভয়ে বিস্তারিত জানাতে অস্বীকার করেছেন তিনি।

সূত্র: ঢাকা পোস্ট
আইএ/ ১৪ নভেম্বর ২০২৩





আরো খবর: