বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:১৮ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

সুপ্রিম কোর্ট-প্রধান বিচারপতির বাসভবন বিশেষ জোন ঘোষণার সুপারিশ

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২৩


ঢাকা, ৩০ অক্টোবর – প্রধান বিচারপতির বাসভবনের হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা। এ ঘটনাটিকে বিচার বিভাগের ওপর আঘাত বলে মনে করেন তারা। একইসঙ্গে এ ধরনের ঘৃণ্য ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে কয়েকটি সুপারিশও করেছেন তারা।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) সুপ্রিম কোর্টের জাজেজ লাউঞ্জে বিচারপতিদের জরুরি মতবিনিময় সভায় এ সুপারিশ করা হয়। বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে ৫টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে জরুরি ভিত্তিতে এ মতবিনিময় সভা ডাকা হয়। এতে আপিল বিভাগের একজন এবং হাইকোর্ট বিভাগের ১৫ জনের মতো বিচারপতি মতামত তুলে ধরেন।

মতবিনিময় সভায় কয়েকজন বিচারপতি বলেন, রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গের মধ্যে বিচার বিভাগ অন্যতম। যার প্রধান হলেন প্রধান বিচারপতি। তার বাসভবনে হামলা করার অর্থ হলো বিচার বিভাগে আঘাত করা। এটা বিচার বিভাগকে ধব্বংস করার ষড়যন্ত্র। স্বাধীনতার পর প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলার মতো ঘৃণ্য ঘটনা এটাই প্রথম। এ হামলার সঙ্গে যারাই জড়িত, তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

সভায় একাধিক বিচারপতি প্রশ্ন তুলে বলেন, প্রধান বিচারপতির বাসভবনের হামলার সময় দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কেন তাৎক্ষণিক কোনও পদক্ষেপ নেননি। নিরাপত্তা দায়িত্বে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সব্বোর্চ গুরুত্ব দিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

সভায় প্রধান বিচারপতিসহ সব বিচারপতিদের বাসভবন, সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় নিরাপত্তা জোরদারের সুপারিশ করা হয়। বলা হয়, এ এলাকায় প্রধান বিচারপতি, বিচারপতি, মন্ত্রীপরিষদের সদস্য,পুলিশ কমিশনারসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা বাস করেন। তাই এ এলাকাকে বিশেষ জোন হিসেবে ঘোষণা করার সুপারিশ করা হয়।

হরতালের মতো রাজনৈতিক কর্মসূচির দিনে বিশেষ পুলিশ মনিটরিং টিম রাখা, বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা, সুপ্রিম কোর্ট ও বিচার বিভাগের মর্যাদা যেন ক্ষুণ্ণ না হয়, সে বিষয়ে বিশেষ নজর দেয়ার সুপারিশ করা হয়।

সভা সূত্র জানায়, প্রধান বিচারপতির বাসভবনের হামলার ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. গোলাম রব্বানীর নেতৃত্বে গঠিত কমিটিও সভায় প্রধান বিচারপতির বাসভবনে নিরাপত্তা জোরদারের সুপারিশ করেছেন।

সূত্র আরও জানায়, বিচারপতিদের বক্তব্যে উঠে আসা সুপারিশ ও রেজিস্ট্রার জেনারেলের নেতৃত্বে গঠিত কমিটির সুপারিশগুলো নিয়ে আগামীকাল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। আপিল বিভাগের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্ব গঠিত সুপ্রিম কোর্ট নিরাপত্ত সংক্রান্ত কমিটি এ বৈঠক করবেন। পরে এ কমিটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে চূড়ান্ত সুপারিশগুলো বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেবেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ২৮ অক্টোবর বিএনপি, আওয়ামী লীগ ও জামায়াতে ইসলামী ঢাকায় সমাবেশ করে। দুপুরের পর কাকরাইল এলাকায় বিএনপির সমাবেশে আসা লোকজনের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সমাবেশগামী লোকজনের সংঘর্ষ হয়। এসময় প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলার ঘটনা ঘটে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
আইএ/ ৩০ অক্টোবর ২০২৩


আরো খবর: