বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১২:০১ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

রামুতে স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর হতাশাজনক ফলাফল

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: সোমবার, ১৩ মে, ২০২৪

রামুতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফলে দূর্গম ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিষ্ঠানগুলো ভালো ফলাফলে এগিয়ে রয়েছে। এছাড়া রামুর একমাত্র সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, জোয়ারিয়ানালা হাজ¦ী মোহাম্মদ সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয়সহ পুরনো ও স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ফলাফলে হতাশ হয়েছেন অভিাভাবক ও সচেতন মহল।
গতকাল রবিবার (১২ মে) ঘোষিত এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি কারিগরি পরীক্ষার ফলাফলে এবারে রামু উপজেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৮২ শিক্ষার্থী। ৩ হাজার ৬১ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২ হাজার ৬৯১ জন, ফেল করেছে ৩৫৮ জন। তৎমধ্যে এসএসসিতে ২১ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২ হাজার ২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১ হাজার ৬৮৮ জন, ফেল করেছে ৩০৯ জন। এসএসসিতে পাশের হার ৮৪.৩১ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯৭ জন। দাখিলে ১১ টি মাদ্রাসার ৬৫৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৬১৪ জন, ফেল করেছে ৩২ জন। দাখিলে পাশের হার ৯৪.০২ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৯ জন। কারিগরিতে ৫ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪০৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩৮৯ জন, ফেল করেছে ১৭ জন। এসএসসি কারিগরিতে পাশের হার ৯৫.৮১ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ জন।
জানা গেছে, রামুতে জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে শীর্ষে রয়েছে, গর্জনিয়া ফইজুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসা। শতভাগ পাশ নিয়েও দাখিলে পাশের হারে শীর্ষে রয়েছে, মাছুমিয়া ইসলামিয়া সুন্নীয়া আলিম মাদ্রাসা, দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা ও তামিরুল উম্মাহ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা। তবে এসএসসিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে শীর্ষে রয়েছে মনসুর আলী সিকদার আইডিয়্যাল স্কুল, দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। অপরদিকে পাশের হারে শীর্ষে রয়েছে, রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল, রামু ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল এবং দক্ষিণ মিঠাছড়ি আবুল কালাম আজাদ উচ্চ বিদ্যালয়। এসএসসি কারিগরি শাখায় জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে ও পাশের হারে শীর্ষে রয়েছে, রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
রামুতে এসএসসিতে জিপিএ-৫ শূণ্য বিদ্যালয় গুলো হচ্ছে, জোয়ারিয়ানালা হাজি মুহাম্মদ সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয়, জারাইলতলী উচ্চ বিদ্যালয়, শেখ হাসিনা জোয়ারিয়ানালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ঈদগড় এ এম বি উচ্চ বিদ্যালয়, গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, ধেচুয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয়, আল ফুয়াদ একাডেমী, বদিউল আলম স্মৃতি বিদ্যাপীঠ। দাখিলে জিপিএ-৫ শূণ্য তালিকায় রয়েছে ঈদগড় বদরমোকাম জেএফডি মাদ্রাসাও।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মনসুর আলী সিকদার আইডিয়্যাল স্কুলে ১৫৫ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১৩৯ জন, পাশের হার ৮৯.৬৮ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ জন। রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১১৪ জন, পাশের হার ৮৫.৭১ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২১ জন। রামু ক্যানটেনমেন্ট ইংলিশ স্কুলে ৩৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩৩ জন, পাশের হার ৯৭.০৬ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ জন। রামু ক্যানটেনমেন্ট পাবলিক স্কুলে ৪৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৪৮ জনই পাশ করেছে। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ জন। রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১৩৯ জন, পাশের হার ৮৬.৮৮ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮ জন। কাউয়ারখোপ হাকিম রকিমা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১১৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১০১ জন, পাশের হার ৯০.১৮ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ জন। নাদেরুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০২ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৭৬ জন, পাশের হার ৭৫.২৫ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ জন। আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১২৮ জন, পাশের হার ৯৫.৫২ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ জন। পানিরছড়া এসএইচডি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৫৫ জন, পাশের হার ৯১.৬৭ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। দক্ষিণ মিঠাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৪৩ জন, পাশের হার ৮২.৬৯ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন। এ কে আজাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৭১ জন, পাশের হার ৯৭.২৬ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন। পশ্চিম গোয়ালিয়া পালং এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮৪ জন, পাশের হার ৮৪.৮৫ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন।

জোয়ারিয়ানালা হাজি মুহাম্মদ সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮৭ জন, পাশের হার ৮১.৩১ শতাংশ। জারাইলতলী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮৫ জন, পাশের হার ৮৬.৮৭ শতাংশ। শেখ হাসিনা জোয়ারিয়ানালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২৩ জন, পাশের হার ৯৫.৮৩ শতাংশ। ঈদগড় এ এম বি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৫ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮২ জন, পাশের হার ৯৬.৪৭ শতাংশ। বদিউল আলম স্মৃতি বিদ্যাপীঠে ২৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২৭ জন, পাশের হার ৯৩.১০ শতাংশ। আল ফুয়াদ একাডেমীতে ১০৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮১ জন, পাশের হার ৭৮.৬৪ শতাংশ। ধেচুয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে ১২৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৯৫ জন, পাশের হার ৭৪.৮০ শতাংশ। কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৪১ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৯৭ জন, পাশের হার ৬৮.৭৯ শতাংশ। গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ১২২ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮০ জন, পাশের হার ৬৫.৫৭ শতাংশ।
অপরদিকে দাখিল পরীক্ষার ফলাফলে রামুর গর্জনিয়া ফইজুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় ১৩৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১২৮ জন, পাশের হার ৯৬.৯৭ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৯ জন। আলগিফারী (রা:) আদর্শ দাখিল মাদ্রাসায় ৬৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৬৫ জন, পাশের হার ৯৭.০১ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ জন। মেরংলোয়া রহমানিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় ৯৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৮৪ জন, পাশের হার ৯১.৩০ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ জন। মাছুমিয়া ইসলামিয়া সুন্নীয়া আলিম মাদ্রাসায় ৩৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ ৩৯ জনই পাশ করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন। দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৪৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ ৪৯ জনই পাশ করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ জন। আবুবক্কর ছিদ্দিকী ইসলামিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসায় ৬৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৬৩ জন, পাশের হার ৯৫.৪৫ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ জন। গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় ৪৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৪১ জন, পাশের হার ৮৯.১৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। রহমানিয়া মদিনাতুল উলুম দাখিল মাদ্রাসায় ৪৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৪১ জন, পাশের হার ৮৯.১৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন। রাজারকুল ইসলামিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসায় ৪২ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩৮ জন, পাশের হার ৯৭ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। তামিরুল উম্মাহ ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৩৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩৪ জনই পাশ করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। ঈদগড় বদরমোকাম জেএফডি মাদ্রাসায় ৩৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৩২ জন, পাশের হার ৯৬.৯৭ শতাংশ।
এছাড়া এসএসসি কারিগরি শাখায় রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯২ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৯১ জন, পাশের হার ৯৮.৯১ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ জন। রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ১১২ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১০৮ জন, পাশের হার ৯৬.৪৬ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনস্টিটিউটে ১১৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ১১১ জন, পাশের হার ৯৪.৮৭ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। শেখ হাসিনা জোয়ারিয়ানালা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৯ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ২৪ জন, পাশের হার ৮২.৭৬ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। জোয়ারিয়ানালা হাজি মুহাম্মদ সাঁচি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৫৫ জন, পাশের হার ৯৮.২১ শতাংশ। এ বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন।


আরো খবর: