রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪৭ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

রামুতে ট্রান্সজেন্ডার মাহি শুনালেন তার জীবনের গল্প

সোয়েব সাঈদ, রামু::
আপডেট: রবিবার, ৩১ মার্চ, ২০২৪

“ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরকামী মো. হাসান মাহি। ছিলেন কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমী ছাত্র। ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ার সময় নিজের ভিতর পরিবর্তন অনুভব করেন।

ওই সময় সহপাঠি ছেলেরা তাকে নানা কুৎসিত কথাবার্তা বলতো। বাধ্য হয়ে বসতেন পেছনের টেবিলে। ক্রমশ মেয়েদের কাপড় পরতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন। মিশতেন মেয়েদের সাথে।

একসময় বড় ভাইসহ পরিবারের সদস্যরা তাকে নিয়ে বিব্রতবোধ করতে শুরু করলো। এক পর্যায়ে বড় ভাই তাকে বললো, এভাবে তোর কারণে আমার পরিবারের মানসম্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে।

তিনি বলতেন, আমার তো করার কিছুই নেই। স্বয়ং আল্লাহপাক আমাকে এভাবে তৈরী করেছেন। এক পর্যায়ে তাকে মারধরও করা হতো। নির্যাতন সইতে না পেয়ে বাধ্য হন বাড়ি ছাড়তে। তখন খবর নেই এক হিছড়া (ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরকামী) আপার সাথে যোগাযোগ করে মানুষের কাছ থেকে টাকা তুলে জীবন কাটাতে শুরু করি।

পরে একটি বেসরকারি সংস্থার আমি চাকরি করি। কিন্তু বছরখানেক পরে সেই সংস্থার প্রকল্পটি বন্ধ হয়ে যায়। সর্বশেষ আমি বিকশিত যুব মানব কল্যান সংগঠনে চাকরি শুরু করি। আমি এখানে সেলাই প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করেছি। এখন আমি নিজে কাপড়ের অর্ডার নিয়ে কাজ করি। এখন আমাকে আর মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে টাকা তুলতে হয়না।

এখন আমি স্বাভাবিক জীবন পার করছি।
এখন আমি মাঝে মাঝে নিজের বাড়িতে যেতে পারি। বাড়ির সদস্যরা এখন আমাকে স্বাভাবিকভাবে মেনে নিয়েছে। তারা সবাই আমাকে ভালোবাসে। এরপরও কর্মস্থলের সুবিধার্থে আমি রামুতে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করি।”

কক্সবাজারের রামুতে আর্ন্তজাতিক ট্রান্সজেন্ডার দৃশ্যমানতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নিজেদের জীবনের সফলতা-ব্যর্থতা তুলে ধরেন মো. হাসান মাহিসহ আরও একাধিক ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরকামী।

রবিবার, ৩১ মার্চ সকালে রামু চৌমুহনী স্টেশন সংলগ্ন কার্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বেসরকারি সংস্থা বিকশিত যুব মানব কল্যান সংগঠন। বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) এর সহায়তায় আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিকশিত যুব মানব কল্যান সংগঠনের সাবেক সভাপতি আবুল মনসুর।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন রামু উপজেলা সভাপতি হাফেজ আহমদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ মহিলা সদস্য রাবেয়া বসরী মহিলা।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বিজেএমকেএস এর এসসিজি প্রকল্প সমন্বয়কারী উজ্জ্বল বড়ুয়া। শুভেচ্ছা বক্তব্যে তিনি ৩১ মার্চ আর্ন্তজাতিক ট্রান্সজেন্ডার দৃশ্যমানতা দিবসের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট ও প্রকল্প কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, বিকশিত যুব মানব কল্যান সংগঠন রামু-কক্সবাজার একটি হিজড়া ভিত্তিক বেসরকারি সেবামূলক সংগঠন।

মুলতঃ হিজড়াদের জীবন মান উন্নয়ন, সরকারি, বেসরকারি সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠানের সংযোগ স্থাপন, সেবা প্রাপ্তিতে সহযোগিতা, আইনি সহায়তা, যৌন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকল্পে সচেতনতামুলক কার্যক্রম, পারিবারিক পর্যায়ে বিভিন্ন উপদেশমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্ট(ব্লাস্ট) এর সহযোগিতায় হিজড়াদের জীবনমান উন্নয়ন এবং আইনি সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সেপ্টেম্বর’২০২৩ হইতে এপ্রিল’২০২৫ পর্যন্ত একটি প্রকল্প শুরু করেছে।

উক্ত প্রকল্পের কার্যক্রম সঠিক এবং সুন্দরভাবে বাস্তবায়নে সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্বশাসিত, সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগসূত্র স্থাপন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
অনুষ্ঠানে ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরকামীদের মধ্যে মো. হাসান মাহি ও রুহুল আমিন ফারিয়া বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আর্ন্তজাতিক ট্রান্সজেন্ডার দৃশ্যমানতা দিবস উপলক্ষ্যে বিকশিত যুব মানব কল্যান সংগঠন কার্যালয় চত্বর থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়।


আরো খবর: