মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৫:২১ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

বান্দরবানে বাবা ও চার ছেলেকে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২২

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শনিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

বান্দরবানের রুমার গ্যালেংগা ইউনিয়নের আবুপাড়ায় বাবা ও চার ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা ঘটনায় ২২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন আবুপাড়ার মৃত আবু আরং ম্রোর ছেলে রুইতু ম্রো (৫০), রুইতু ম্রোর ছেলে ইংচং ম্রো (২৬), মাংজং ম্রো (২৮), নিয়াকক ম্রোর ছেলে ক্রংপং ম্রো (৩৮), মেনকং ম্রোর ছেলে পাসিং ম্রো (২২), রুইতু ম্রোর ছেলে ক্রংতন ম্রো (৩৫), ক্রাতপং সিংচাং ম্রো (৩৯), থনলক ম্রোর ছেলে রিংয়ং ম্রো (৩৫), মেনকং ম্রোর ছেলে ইজাং ম্রো (২৭), সাখকয় ম্রোর ছেলে থনলক ম্রো (৩৫), সাকখয় ম্রোর ছেলে পালে ম্রো (২৫), লংঙি ম্রোর ছেলে ক্লাংসাই ম্রো (২০), মেনকং ম্রোর ছেলে মেনপ্রে ম্রো (২০), থনলক ম্রোর ছেলে খংপ্রে ম্রো, থনলক ম্রোর ছেলে কাইং প্রে ম্রো (১৮), ক্রাতপুং ম্রোর ছেলে মেনরাও ম্রো (২২), লংঙি ম্রোর ছেলে মেনয়া ম্রো (২৬), কামপাও ম্রোর ছেলে খনতন ম্রো (৪১), লংঙি ম্রোর ছেলে মেনয়ং ম্রো (২৪), সাকখয় ম্রোর ছেলে চাংরাও ম্রো (৩১), নিয়াকক ম্রোর ছেলে থংওয়াই ম্রো (২৪) ও লংঙি ম্রোর ছেলে মেনপং ম্রো (৩৭)। তারা সবাই রুমার গ্যালেংগা ইউনিয়নের পান্তলা মৌজার আবুপাড়ার বাসিন্দা।

শুক্রবার (২৪) সন্ধ্যায় রুমার গ্যালেংগার আবুপাড়ার ৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, পাড়াবাসীর সঙ্গে ওই এলাকার কারবারী পরিবারের জুম চাষের জমির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকালে পাড়াবাসীর সঙ্গে কারবারী পরিবারের ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে কারবারী পরিবারের পাঁচ সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহতরা হলেন আবুপাড়ার কারবারী ল্যাংরুই ম্রো (৬০) ও তার চার ছেলে রুংথুই ম্রো (৪০), লেংরুং ম্রো (৩৭), মেনওয়াই ম্রো (৩৫) ও রিংরাও ম্রো (২৫)।

খবর পেয়ে পাঁচ জনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে অভিযান চালিয়ে পাড়ার ২২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের রুমা থানায় নিয়ে এলে হত্যার কথা স্বীকার করে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে আনা হয়েছে।

রুমা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী রাকিব উদ্দিন বলেন, পাঁচ জনের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ২২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। হত্যার কথা স্বীকার করেছে গ্রেফতারকৃত আসামিরা। শনিবার সকালে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানো হবে।


আরো খবর: