বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী’র ভূয়সী প্রশংসা করেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট: শনিবার, ৮ জানুয়ারি, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক:
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ভূয়সী প্রশংসা করেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলায়মান সয়লু।

শনিবার(৮ জানুয়ারি) উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৯ এ তুর্কি ফিল্ড হসপিটাল উদ্বোধনের সময় তিনি এ মন্তব্য করেন। সোলায়মান সয়লু বলেন,” রোহিঙ্গা সংকট উত্তরণে তুরস্ক সরকার সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে।

এদিকে,শনিবার সকালে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। এসময় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকতাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৯ এ অবস্থিত তুর্কি ফিল্ড হাসপাতাল উদ্বোধন করেন তিনি।
দোভাষীর মাধ্যমে তিনি উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন।

এসময় তিনি বাংলাদেশে সরকারের প্রতি রোহিঙ্গাদের মানবিকতার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কে মাদার অব হিউম্যানিটি বলে আখ্যায়িত করেন। ক্যাম্পের সার্বিক সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন সোলায়মান সয়লু। দুই দেশের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক বিদ্যমান রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে,তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যাম্পে পৌঁছালে
রোহিঙ্গা শিশুরা তাকে বাংলাদেশ ও তুরস্কের পতাকা নেড়ে স্বাগত জানায়। বাচ্চাদের সাথে হাসিমুখে কথা বলেন এবং প্রত্যেকের নাম জিজ্ঞাসা করেন এবং তুরস্কের সহযোগিতায় পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলো পরিদর্শন করেন সোলায়মান সয়লু। ১৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তুর্কি রেড ক্রিসেন্টের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম, দিয়ানাত ফাউন্ডেশন পরিচালিত রোহিঙ্গা দ্বারা সাবান তৈরির কারখানা, খিলজাই নামে একটি সংস্থার লার্নিং সেন্টারের শিক্ষা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণসহ বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন করেন তিনি।

এদিকে, তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে ক্যাম্পজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা করে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তোষ প্রকাশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলায়মান সয়লু। এসময় ৮ এপিবিএন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সিহাব কায়সার খান তাকে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

এসময় তুরস্কের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ইসমাইল ছাতাকলু,স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী খালিল বল দামির, বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান,চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান,চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন,শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াত,কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ,পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান, ১৪ ও ৮ এপিবিএন পুলিশ সুপার, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকতাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরিদর্শন শেষে দুপুর ২টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে কক্সবাজার ত্যাগ করেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলায়মান সয়লু। ঢাকায় বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করেন তিনি।


আরো খবর: