বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের অপরিকল্পিত অবস্থা দেখে উদ্বিগ্ন!

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

বিশ্বের শ্রেষ্টতম পর্যটন স্পট প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে প্রতিবেশ সংকটাপন্ন রক্ষায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়–সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) বিকেলে দ্বীপটিতে থাকা জেলা প্রশাসনের তথ্য ও সেবাকেন্দ্রে কমিটির ৩৩তম উক্ত সভাটি সম্পন্ন হয়।

বৈঠকে স্থায়ী কমিটির সভাপতি এমপি আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী দু:খ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘দ্বীপের বেহাল অবস্থা দেখে আমরা উদ্বিগ্ন। দ্বীপে না আসলে অপরিকল্পিত অবকাঠামো দেখা সম্ভব হত না।

আমি ১৯৯৭ সালে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে এসে, প্রবালে ভরপুর সবুজে বিস্তৃত প্রকৃতিগত দৃশ্য উপভোগ করেছি। কিন্তু এখন সে দৃশ্য নেই। এই অবস্থায় আমি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন আতংকিত। কেননা আগামী পাঁচ বছর পর অবস্থা কি হয় তা কল্পনার বাইরে। তখন পর্যটকরা আসবেন কিনা সন্দেহ?। দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমাটিন এভাবে চলতে দেয়া যায় না। তাই পর্যটন বান্ধব পরিবেশ গড়ে তুলার পাশাপাশি দ্বীপ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সাংসদ আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী’র সভাপতিত্বে বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মাহবুব আলী, সংসদীয় কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, কানিজ ফাতেমা আহমেদ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ড.মো.আমিনুর রহমান, সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি, জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন এমরান, ইউএনও মো. কামরুজ্জামান, এসিল্যান্ড এরফানুল হক চৌধুরীসহ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়সহ সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সভায় বক্তরা, অপরিকল্পিত ভাবে হোটেল-মোটেল নির্মাণ বন্ধ করার পাশাপাশি সেন্টমার্টিনে ধারণ ক্ষমতার বাইরে পর্যটক ভ্রমনের বিষয়সহ দ্বীপ রক্ষার্থে স্থানীয় মানুষজন, হোটেল মালিক, ট্যুর অপারেটর ও জাহাজ মালিকদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানানো হয়।

এছাড়া জরাজীর্ণ সেন্টমার্টিন জেটিটি পুর্ণ নিমার্ন বাস্তবায়ন করার জন্য কতৃপক্ষকে নির্দেশনা দেয়া হয়। এর আগে কমিটির সদস্যরা দ্বীপের চারিদিক ঘুরে দেখেন।


আরো খবর: