শিরোনাম ::
জার্মানিতে বাড়িতে বিস্ফোরণ, আগুন পুড়ে মৃত্যু ৩ টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে কোটি টাকার আইসসহ আটক-১ সংস্কারের অভাবে মরণ ফাঁদে পরিণত উখিয়ার রুমখাঁপালং-হাতিরঘোনা স্কুল সড়ক উখিয়ায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী চশমা মার্কার সমর্থনে প্রচারণা উখিয়ায় হ্যান্ডগ্রেনেড ও বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ চার রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার মেরিন ড্রাইভে রেন্ট বাইক দুর্ঘটনায় সদ্য বিবাহিত পর্যটকসহ নিহত ২ কবর দেওয়ার চারদিন পর বৃদ্ধকে জীবিত উদ্ধার তারুণ্যের বার্তা নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে প্রার্থী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক রাসেল আজ থেকে মাঠে নামছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ইসরায়েলকে গাজায় আগ্রাসনের ‘অজুহাত’ করে দিয়েছে হামাস
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:১১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

পেকুয়ায় হাসপাতালে নবজাতক সন্তান রেখে পালিয়ে গেলেন মা

পেকুয়া প্রতিনিধি ::
আপডেট: বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক প্রসূতি মা কন্যা সন্তান প্রসব করে পালিয়ে গেছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত ৮টার দিকে এক গর্ভবতী মহিলা হাসপাতালে ভর্তি হন। ভর্তির ১০-১৫ মিনিটের মধ্যেই ওই মহিলা এক কন্যা সন্তান প্রসব করেন। পরে টয়লেটে যাওয়ার কথা বলে নবজাতক বাচ্চাটি হাসপাতালে রেখেই পালিয়ে যান মা।

পেকুয়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুজিবুর রহমান বলেন, মঙ্গলবার রাতে এক গর্ভবতী মহিলা হাসপাতালে আসেন। ওই মহিলার তখন তীব্র প্রসব বেদনা ছিলো। তাই ডাক্তার-নার্সরা দ্রুত সন্তান প্রসবের ব্যবস্থা করেন। এতে হাসপাতালের রেজিস্ট্রারে তাঁর নাম ঠিকানা লিপিবদ্ধ করার সুযোগ ছিলোনা। পরে প্রসব করা নবজাতক বাচ্চাটি রেখে পালিয়ে যান তিনি।

এদিকে হাসপাতালে বাচ্চা ফেলে মা পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হয় পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। উৎসুক জনতা সে বাচ্চাটিকে দেখতে ভীড় জমাচ্ছেন সেখানে। অনেকে সে বাচ্চার দায়িত্ব নিতেও আগ্রহ প্রকাশ করেন।

বুধবার বিকেলের দিকে ওই নবজাতকের প্রয়োজনীয় সকল পণ্য নিয়ে হাসপাতালে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, হাসপাতালে এক নবজাতককে ফেলে মা পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় আমি বেশ মর্মাহত। ওই মহিলা কেন এমনটি করেছেন তা এখনো আমাদের মাঝে পরিস্কার না। একজন নবজাতকের জন্মের পর যা যা লাগে এর সবকিছু আমার পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের নার্সসহ ইতোমধ্যে বাচ্চাটির দায়িত্ব নিতে অনেকে ইচ্ছে পোষণ করেছেন। আপাতত বাচ্চাটিকে হাসপাতালের হেফাজতে রাখা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আমরা বসে কাকে বাচ্চাটির দায়িত্ব দেওয়া যায় সে ব্যাপারে সিদ্ধান নিবো।


আরো খবর: