বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

টেকনাফে র‌্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমাণ বিদেশী বিয়ার ও মদসহ আটক-১

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: সোমবার, ৭ নভেম্বর, ২০২২

আব্দুস সালাম,টেকনাফ(কক্সবাজার)

কক্সবাজারের টেকনাফ থানাধীন নয়াপাড়া বাজার এলাকায় বিদেশী ১২১ ক্যান বিয়ার ও ৭ বোতল মদসহ র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে মোঃ জামাল (৪০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মোঃ আবু সালাম চৌধুরী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান,র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার এর ব্যাটালিয়ন সদরের ক্যাম্পের আভিযানিক দল রবিবার (৬ অক্টোবর) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ থানাধীন নয়াপাড়া বাজার সংলগ্ন জনৈক আব্দুল জব্বার এর মুদি দোকানের সামনে রাস্তার নিকট এক অভিযান পরিচালনা করে এবং একজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত ১নং ধৃত ব্যক্তির দেহ ও বস্তা তল্লাশী করে তার হাতে থাকা প্লাস্টিকের বস্তার ভেতর থেকে ৭টি বিদেশী কাচের মদের বোতল ও ৭০ ক্যান বিয়ার ২নং পলাতক আসামীর ফেলে যাওয়া মতে একটি প্লাস্টিকের বস্তার ভেতর থেকে ২০ ক্যান বিয়ার, ৩নং পলাতক আসামীর ফেলে যাওয়া মতে একটি প্লাস্টিকের বস্তার ভেতর থেকে ১৬ ক্যান বিয়ার এবং ৪নং পলাতক আসামীর ফেলে যাওয়া মতে একটি প্লাস্টিকের বস্তার ভেতর থেকে ১৫ ক্যান বিয়ার সহ সর্বমোট ১২১ ক্যান বিয়ার ও ৭ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত ব্যক্তির নাম ও ঠিকানা টেকনাফ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড কুলাল পাড়ার মৃত কবির আহমদের ছেলে ও বর্তমানে সাবরাং ৬নং ওয়ার্ড নয়াপাড়া বেড়িবাধের পাশে মোঃ জামাল (৪০) বলে জানা যায় এবং আটককৃত আসামী জানায় যে, আভিযানিক দল বর্ণিত ঘটনাস্থলে পৌঁছার একটু পূর্বে অপরাপর মাদক কারবারীসাবরাং ৬নং ওয়ার্ড নয়াপাড়া মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে বশির আহমদ (৩৫) একই এলাকার মোঃ হোসেনের ছেলে মোঃ রিফাত (২০),সাবরাং নয়াপাড়া ঝিনাপাড়ার মৃত সৈয়দ মেম্বারের ছেলে মোঃ শরীফ (৪০) পালিয়ে যায়।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত ব্যক্তির উপরোক্ত নাম ঠিকানা প্রকাশ করে এবং বর্ণিত মাদক ব্যবসায়ীগণ পরস্পর যোগসাজসে জব্দকৃত মাদকদ্রব্য বিদেশী মদ ও বিয়ার ক্যানসহ টেকনাফ সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে সংগ্রহ করে টেকনাফ-কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে তাদের নিজ হেফাজতে রেখেছিল। উপরোল্লিখিত বিদেশী মদ ও বিয়ার ক্যানসহ র‌্যাব-১৫ এর আভিযানিক দলের কাছে ধৃত হয়।

তিনি আরো জানান,উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যসহ বর্ণিত আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে নিয়মিত মামলা রুজু করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরো খবর: