শিরোনাম ::
উখিয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু পেকুয়ায় বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করে কিশোরীর ভিডিও ধারণ, যুবক আটক পেকুয়ায় হাসপাতালে নবজাতক সন্তান রেখে পালিয়ে গেলেন মা বাংলাদেশে ঢুকল মিয়ানমারের আরও ৪৬ বিজিপি সদস্য মহেশখালীতে র‍্যাব ও পুলিশের অভিযান, ৭ টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ৪ পেকুয়ার মানুষের সেবা করতেই ছুটে এসেছি- ড. সজীব বাইক দুর্ঘটনায় রামুর পোল্ট্রি ব্যবসায়ী নিহত কক্সবাজারে হোটেলের সুইমিংপুলের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু চকরিয়ায় বাড়ি থেকে ঢেকে নিয়ে মেম্বার প্রার্থীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা পেকুয়ায় রেঞ্জ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পাহাড়ের জব্দকৃত বালু বিক্রির অভিযোগ
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

টেকনাফে ফের স্কুল শিক্ষক অপহরণ,মুক্তিপণ দাবী

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ৩১ মার্চ, ২০২৪

আব্দুস সালাম,টেকনাফ::

কক্সবাজারের টেকনাফে এবার অপহরণের শিকার হলেন এক স্কুল শিক্ষক। অপহৃত রবিউল আলম টেকনাফের দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

শনিবার (৩০মার্চ) রাত ৮ টার দিকে বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইজিবাইক (টমটম) গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাহাড় নিয়ে যায় অপহরণকারীরা।
অপহরণের শিকার শিক্ষক রবিউল আলমের স্ত্রী বলেন, ‘রাত দেড় টার দিকে আমার স্বামীর নম্বর থেকে মোবাইলে ফোন দিয়ে অপহরণকারীরা ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

হাসিনা বেগম বলেন, ‘এতো টাকা আমি কোথায় পাবো? টাকা না দিলে ওরা আমার স্বামীকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।’

অপহৃত রবিউলের ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সর্বশেষ সকালে ফোন করে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ
টেকনাফে এবার অপহরণের শিকার হলেন এক স্কুল শিক্ষক। অপহৃত রবিউল আলম টেকনাফের দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

শনিবার রাত ৮ টার দিকে বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইজবাইক (টমটম) গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাহাড় নিয়ে যায় অপহরণকারীরা।

অপহরণের শিকার শিক্ষক রবিউল আলমের স্ত্রী বলেন, ‘রাত দেড় টার দিকে আমার স্বামীর মুঠোফোন নাম্বার থেকে কল দিয়ে অপহরণকারীরা ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

হাসিনা বেগম আরো বলেন, ‘এতো টাকা আমি কোথায় পাবো? টাকা না দিলে ওরা আমার স্বামীকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।’

অপহৃত রবিউলের ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সর্বশেষ সকালে ফোন করে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ
দাবি করেছে ডাকাতরা। নয়তো আমার ভাইকে মেরে ফেলা হবে।

দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, ডাকাদল অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নিয়ে যাচ্ছে সাধারণ মানুষদের। চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি আমরা। এভাবে তো চলতে পারেনা।

এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান, আমরা পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করি তাকে উদ্ধার করতে পারবো।

###


আরো খবর: