শিরোনাম :
চকরিয়ায় সব পর্যটন স্পট কমিনিউটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে দুইদফায় স্থগিত হলো চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচন হতাশায় ভোটার, খরচের খাতা দীর্ঘ হচ্ছে প্রার্থীদের! উখিয়ায় বসতবাড়ি ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট, মহিলা সহ আহত ৩ উখিয়ায় সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট পরিদর্শনে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন হোটেল-মোটেলসহ কক্সবাজারের সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে শিগগিরই চালু হবে ইন্সটিটিউট ও পাবলিক লাইব্রেরী-সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দীন উখিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রোহিঙ্গার মৃত্যু উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এপিবিএনের কার্যক্রম পরিদর্শনে ডিআইজি টেকনাফের নাফ নদী থেকে ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার টেকনাফে এক্স-রেতেই ধরা খেল পাকস্থলীতে ইয়াবা
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

টেকনাফের চাঞ্চল্যকর আলো হত্যা মামলার আসামী দিদার কারাগারে

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ১৬, ২০১৮ ৭:৩৬ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ১৬, ২০১৮ ৭:৩৬ পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজার পোস্ট ডটকম ::
কক্সবাজারের টেকনাফের চাঞ্চল্যকর আলী উল্লাহ (আলো) হত্যা মামলার অন্যতম আসামী দিদারুল আলম (দিদার মিয়া)কে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (টেকনাফ) আদালতে জামিন প্রার্থনা করলে আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক তামান্না ফারাহ। আসামী দিদার মিয়া টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদের ছেলে। সে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত আসামী ও চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী।
জানা গেছে, ২০১১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর টেকনাফ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাপাদক মোহাম্মদ আব্দুল্লার শিশু পুত্র বর্ডার গার্ড স্কুলের ছাত্র আলী উল্লাহ আলোকে (৭) নৃশংসভাবে জবাই করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এঘটনায় পিতা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। মামলা নং জিআর-৩৭০/২০১১।
পরে ওই মামলায় সিআইডির তদন্তে দিদারুল আলম দিদার প্রকাশ দিদার মিয়া ও মুহিবুল্লাহ নামে আরও দুই জনকে আসামি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এরমধ্যে দিদার টেকনাফের বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদের ছেলে। মুহিবুল্লাহ শাহপরীরদ্বীপের মাঝেরপাড়ার মাওলানা আবদুল জলিলের ছেলে।
বাদী পক্ষের আইনজীবী আমিন উদ্দিন বলেন, মুহিবুল্লাহ পলাতক থাকলেও দিদারুল আলম দিদার জামিনে ছিলেন। জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় আদালতে আতœসমর্পন করে জামিন আবেদন করলে বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। তিনি আরও বলেন, আলোচিত এই মামলায় এখনও দুইজন আসামি সুমন ও নজরুল ইসলাম জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছে। এ মামলার বাকী আসামীরা হলো- ইয়াছিন প্রকাশ রায়হান, ইয়াকুব, মোহাম্মদ ইছহাক প্রকাশ কালু।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::