বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:১০ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

ঘুমধুমে এখনো অভিযানের ছোঁয়া লাগেনি যেসব অবৈধ ইটভাটায়

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ৭ মার্চ, ২০২৩
ঘুমধুমে এখনো অভিযানের ছোঁয়া লাগেনি যেসব অবৈধ ইটভাটায়




উখিয়া বার্তা ডেস্ক::

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় অনুমোদনবিহীন গড়ে ওঠা ইটভাটায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসময় ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।

কিন্তু পাহাড় কেটে, বনের কাঠ পুড়িয়ে কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী উপজেলার নাইক্ষ্যংছড়িতে অবৈধভাবে চলছে ৬টি ইটভাটা। আইনের তোয়াক্কা না করে জনবসতি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বন ঘেঁষে গড়ে তোলা হয়েছে মিলন মিস্ত্রির HSB, সাজু বড়ুয়ার DSB, ফরিদ কোম্পানির BBM, আবুল কালাম মেম্বারের KRS, খালেদ সরওয়ার হারেজর KRE, বাবু, হারুন কোম্পানি এখনো অভিযানের ছোঁয়া লাগেনি এসব ভাটায়।

সোমবারে (৬ মার্চ) সকাল ১২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত নাইক্ষ‍্যংছড়ি উপজেলার রেজুআমতলী আজুখাইয়া নামক স্থানে অরূপ রতন সিংহ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (জেলা প্রশাসন বান্দরবান পার্বত্য জেলা) এবং মোঃ আব্দুস সালাম (জুনিয়র কেমিস্ট পরিবেশ অধিদপ্তর বান্দরবান পার্বত্য জেলা) এর নেতৃত্বে RAB এবং ফায়ার সার্ভিস’কে সাথে নিয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আজুখাইয়া ইট ভাটার মালিক আবুল কালাম চৌধুরীকে ১,৫০,০০০ টাকা এবং ফকিরা পাড়া ইট ভাটার মালিক মোঃ হারিস চৌধুরী’কে ৩,০০০০০ টাকা জরিমানা করেন এবং এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভিন তীবরিজী বলেছেন, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২০০৮ সালের নির্দেশনা অনুযায়ী, তিন পার্বত্য জেলা এবং চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকার ১০ কিলোমিটারের মধ্যে ইটভাটার অনুমতিপত্র দেওয়া যাবে না। এ জন্য কোনো ইটভাটার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না এবং বান্দরবানে একটিও বৈধ ইটভাটা নেই। এক সপ্তাহের মধ্যের এইসব অবৈধ ইটভাটাগুলের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হবে।









আরো খবর: