রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪৫ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

গাজায় নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা ২৯৫০০ ছাড়াল

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
গাজায় নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা ২৯৫০০ ছাড়াল


জেরুজালেম, ২৩ ফেব্রুয়ারি – গাজায় ইসরায়েলি তাণ্ডবে নিহতের সংখ্যা ২৯ হাজার ৫০০ ছাড়িয়ে গেছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ৬৯ হাজার ৬১৬ জন। গাজার হামাস-নিয়ন্ত্রিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এদিকে গাজার মধ্যাঞ্চলে আবাসিক ভবনে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় কমপক্ষে ৪০ জন নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। গত ৭ অক্টোবর হামাস এবং ইসরায়েলের মধ্যে সংঘাত শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত গাজায় ২৯ হাজার ৫১৪ জন প্রাণ হারিয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই নারী এবং শিশু।

গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফা শহরের একটি বাড়িতে বিমান হামলার ঘটনায় কমপক্ষে ছয়জন নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও বেশ কয়েকজন। ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা ওয়াফা নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, রাফা শহরের পূর্বে অবস্থিত জালাতা এলাকায় ওই হামলা চালানো হয়েছে। আহতদের আবু ইউসুফ আল-নাজ্জার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ওয়াফা আরও জানিয়েছে, ইসরায়েলি বাহিনী মধ্য রাফার ইয়াবনা ক্যাম্পের একটি বাড়িতে বোমা হামলা চালিয়েছে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেনিন শরণার্থী শিবিরে একটি গাড়িতে ইসরায়েলি বিমান হামলায় আহত ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েলি চেক পয়েন্টের কাছে গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে। এতে তিনজন নিহত ও আটজন আহত হয়েছেন।

ইসরায়েলের অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের প্রধান এলিন বিন জানান, বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) হামলায় আহতদের মধ্যে দুইজনের অবস্থান মারাত্মক।

ইসরায়েলি পুলিশ জানিয়েছে, পশ্চিম তীরের পূর্ব জেরুজালেমের কাছে কেন্দ্রীয় মহাসড়কে ধীর গতির ট্রাফিকের সুযোগ নিয়েছে হামলাকারীরা।

একজন মুখপাত্র বিস্তারিত কোনো তথ্য না জানিয়ে বলেছেন, হামলাকারীরা ফিলিস্তিনি। তবে পাল্টা হামলায় দুই বন্দুকধারীও নিহত হয়েছেন। গাজা এখন মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান। সেখানে মানবিক কার্যক্রম পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

অপরদিকে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্থানে হামলা চালিয়েছে লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ। এক বিবৃতিতে সামরিক অভিযানের বিষয়ে হিজবুল্লাহ জানিয়েছে, তারা ইসরায়েলের বেশ কয়েকটি ঘাঁটিতে আক্রমণ করেছে। লেবানন-ইসরায়েল সীমান্তের পূর্ব দিকে মেটুলা এবং মানারা শহরে ইসরায়েলি সেনাদের দুটি ভবনে হামলা চালিয়েছে।

হিজবুল্লাহ আরও জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার তাদের দুই যোদ্ধা নিহত হয়েছে। সীমান্তে ইসরায়েলি সৈন্যদের সঙ্গে গোলাগুলি অব্যাহত রয়েছে। ইরান-সমর্থিত এই গোষ্ঠীটি জানিয়েছে, গাজায় যুদ্ধ শেষ হলেই ইসরায়েলের ওপর তাদের আক্রমণ বন্ধ হবে। তবে ইসরায়েলি নেতারা হিজবুল্লাহকে ইসরায়েলের উত্তর সীমান্ত থেকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। প্রয়োজনে পূর্ণ মাত্রার যুদ্ধের হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: জাগো নিউজ
আইএ/ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪





আরো খবর: