বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

কারাগার থেকে ফোনে ছেলেদের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন ইমরান খান

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
কারাগার থেকে ফোনে ছেলেদের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন ইমরান খান


ইসলামবাদ, ০১ সেপ্টেম্বর – সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানকে তার ছেলেদের সঙ্গে ফোনে কথা বলার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) পাকিস্তানের অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট আদালতের বিচারক আবুয়াল হাসনাত জুলকারনাইন এ বিষয়ে জেল কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানায় পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইমরান খান তার আইনজীবী উমাইর নিয়াজি ও শিরাজ আহমেদের মাধ্যমে ছেলেদের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি চেয়ে বিশেষ আদালতে আবেদন করেছিলেন। আবেদনে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি আমার দুই ছেলে কাসিম ও সুলাইমান খানের সঙ্গে টেলিফোনে কিংবা হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলতে চাই।

তার এ আবেদন আমলে নেওয়া হয়। আদালতের নির্দেশের পর পিটিআই চেয়ারম্যানের তার ছেলেদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলার বিষয়ে জেল কর্তৃপক্ষের অবস্থান নিয়ে পাঞ্জাবের স্বরাষ্ট্র বিভাগে আলোচনা হয়। ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজি প্রিজনস) মিয়া ফারুক নাজির বিষয়টি নিয়ে পাঞ্জাবের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেন। জেলের নিয়ম অনুযায়ী ফোনে কথা বলার অনুমতি পান ইমরান খান।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পাঞ্জাবের অ্যাটক কারাগারে আন্তর্জাতিক কল করার কোনো সুবিধা নেই। এ সুবিধা শুধু লাহোরের কোট লাখপত জেল ও রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে রয়েছে। এ দুই কারাগারে কিছু বিদেশি বন্দি থাকায় এ সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

গত ৫ আগস্ট সরকারি কোষাগার তোশাখানার মালামাল নিয়ে দুর্নীতি করার অভিযোগে ইসলামাবাদের একটি জেলা ও দায়রা আদালত তাকে তিন বছরের কারাদণ্ড ও ১ লাখ রুপি জরিমানা করেন। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে গ্রেফতার করা হয়। একই সঙ্গে তাকে পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করে দেশটির নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)। পরে ইমরান খান এ রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন।

গত সপ্তাহে কারাদাণ্ডের সেই রায় স্থগিত ঘোষণা করে ইমরান খানকে কারাগার থেকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন ইসলামাবাদ হাইকোর্ট। এ রায়কে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী সাবেক তারকা ক্রিকেটারের জন্য বড় রাজনৈতিক বিজয় হিসেবে দেখা হয়।

এদিকে, তোশাখানা মামলায় মুক্তি পেলেও অ্যাটক কারাগার থেকে জামিন মেলেনি ইমরান খানের। কারণ সাইফার অর্থাৎ রাষ্ট্রীয় গোপন নথি ফাঁসের মামলায় তাকে দুই সপ্তাহের বিচারিক হেফাজতে রাখার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: জাগো নিউজ
আইএ/ ০১ সেপ্টেম্বর ২০২৩





আরো খবর: