শুক্রবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

ওসি শেখ মো: আলী চকরিয়ায় বদলি, উখিয়ার অপরাধী চক্রের মধ্যে খুশির আমেজ

সাঈদ মুহাম্মদ আনোয়ার :
আপডেট: শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২৩

কক্সবাজারের উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলীকে চকরিয়া থানায় বদলী করে নতুন ওসি হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে উখিয়ার অপরাধী সিণ্ডিকেট চক্রের মধ্যে আনন্দের বন্যা দেখা দিয়েছে, পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভ কাজ করছে।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) কক্সবাজার জেলা পুলিশের এক অফিস আদেশে তাকে এবদলি করা হয়।

কক্সবাজারের পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ হিসাবে দায়িত্ব পালন শেষে গত ২০২২ সালের ২৯ মে উখিয়া থানায় অফিসার ইনচার্জ হিসাবে যোগদান করেছিলেন তিনি।

উখিয়ায় ১ বছর ৫ মাস ১৭ দিন অত্যান্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনকালে অপরাধ দমনের মাধ্যমে উপজেলায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নিরলস ভাবে কাজ করে গেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তিনি তার দায়িত্বকালীন দেড় বছর সময়ে বিট পুলিশিং কার্যক্রম, পরোয়ানাভুক্ত আসামী গ্রেফতার, এলাকার মাদক, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং, অবৈধ জমি দখল, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপরাধ দমনসহ বিভিন্ন অন্যায়ের বিরুদ্ধে কাজ করে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তার আমলে উখিয়া থানা ছিলো সম্পুর্ণ দালাল ও ঘুষ মুক্ত।

তারই ধারাবাহিকতায় প্রতিমাসে অনুষ্ঠিত জেলা পুলিশের মাসিক অপরাধ দমন পর্যালোচনা সভায় মামলা তদন্ত, মাদক উদ্ধার, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিলসহ পুলিশের যাবতীয় কাজ পেশাদারিত্বের সাথে পালন করে তিনি ১৩ বার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হিসেবে নির্বাচিত হয়ে পুরষ্কৃত হয়ে উখিয়ার ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছেন। সেই সাথে তার দায়িত্ব পালন কালে উখিয়া থানা ১২ বার কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ থানা মনোনীত হয়েছে।

তিনি সন্ত্রাস, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, মাদক, অস্ত্র উদ্ধার, আইন-শৃঙ্খলা শান্তি-রক্ষা, জুয়া, পারিবারিক কলহ’সহ বিভিন্ন সামাজিক, পারিবারিক ও রাজনৈতিক অপরাধ এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড থেকে উখিয়া উপজেলাকে অপরাধমুক্ত করতে নানান কৌশল অবলম্বন করে পুরো জেলায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন।

তাঁর সু-কৌশলী কর্মদক্ষতায় জনগনের সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলে ‘পুলিশ জনগনের সেবক, সেবাই পুলিশের ধর্ম’, পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ’ এটা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন এবং তিনি দায়িত্বে থাকাকালীন সময়ে উখিয়া থানা পুলিশের ভূমিকা ছিলো প্রশংসনীয়।

পুলিশের দায়িত্বশীল সুত্রে জানা গেছে, ইন্সপেক্টর শেখ মোহাম্মদ আলী (নাদিম আলী) উখিয়া থানায় অফিসার ইনচার্জ হিসাবে যোগদানের পূর্বে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ হিসাবে সততার সাথে কাজ করে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

এ বিষয়ে ইন্সপেক্টর শেখ মোহাম্মদ আলী কাছে তার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি সবসময় চেষ্টা করি আমার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ যথাযথ ভাবে পালন করতে ও যথাযথ আইন অনুসরণ করতে এবং আমি কখনও অন্যায়ের সাথে আপোষ করি না। অন্যায়কারীকে আমি কখনো প্রশ্রয় দেইনি।

প্রসঙ্গত, শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম কক্সবাজারের ডিবি ওসি থাকাকালীন সময়ে ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারী এক বিশেষ অভিযান চালিয়ে দেশের সর্ববৃহৎ ইয়াবা চালান ১৭ লক্ষ ৭৫ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার ও নগদ ১ কোটি ৭০ লাখ ৬৮ হাজার ৫০০ টাকা জব্দ করেন। ওই অভিযানের উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য ছিলো প্রায় ৫৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা।


আরো খবর: