শিরোনাম ::
জার্মানিতে বাড়িতে বিস্ফোরণ, আগুন পুড়ে মৃত্যু ৩ টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে কোটি টাকার আইসসহ আটক-১ সংস্কারের অভাবে মরণ ফাঁদে পরিণত উখিয়ার রুমখাঁপালং-হাতিরঘোনা স্কুল সড়ক উখিয়ায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী চশমা মার্কার সমর্থনে প্রচারণা উখিয়ায় হ্যান্ডগ্রেনেড ও বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ চার রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার মেরিন ড্রাইভে রেন্ট বাইক দুর্ঘটনায় সদ্য বিবাহিত পর্যটকসহ নিহত ২ কবর দেওয়ার চারদিন পর বৃদ্ধকে জীবিত উদ্ধার তারুণ্যের বার্তা নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে প্রার্থী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাংবাদিক রাসেল আজ থেকে মাঠে নামছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ইসরায়েলকে গাজায় আগ্রাসনের ‘অজুহাত’ করে দিয়েছে হামাস
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প – DesheBideshe

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: বুধবার, ৮ নভেম্বর, ২০২৩
ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প - DesheBideshe


জাকার্তা, ০৮ নভেম্বর – ইন্দোনেশিয়ার বান্দা সাগর এলাকায় ৭ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। তবে এই ভূমিকম্পের পর কোনো সুনামি সতর্কবার্তা জারি করা হয়নি। এ ছাড়া তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতির খবরও পাওয়া যায়নি। বুধবার (৮ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানিয়েছে, বুধবার স্থানীয় সময় ১১টা ৫৩ মিনিটে ৭ দশমিক ১ মাত্রার এই ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে প্রাথমিকভাবে এই ভূমিকম্পের মাত্রা রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৯ ছিল বলে জানিয়েছিল সংস্থাটি।

ইন্দোনেশিয়ান আবহাওয়া, জলবায়ু ও ভূতাত্ত্বিকবিষয়ক সংস্থা বিএমকেজি বলেছে, বুধবারের এই ভূমিকম্প তানিম্বার দ্বীপপুঞ্জের সাউমলাকি শহরে মৃদুভাবে অনুভূত হয়েছে।

ল্যাম্বার্ট তাতাং নামে এক বাসিন্দা এএফপিকে বলেছেন, ভূমিকম্পটি বেশ তীব্র ছিল। তবে আমরা আতঙ্কিত হইনি। কেননা আমরা ভূমিকম্পে অভ্যস্ত।

৪১ বছর বয়সী এই বাসিন্দা আরও বলেছেন, ভূমিকম্পের পর কোনো সুনামি সতর্কবার্তা জারি করা হয়নি। ফলে এখানে সব কিছু স্বাভাবিকভাবে চলছে।

প্রশান্ত মহাসাগরীয় ‘রিং অব ফায়ার’ অবস্থিত ইন্দোনেশিয়ায় ঘন ঘন ভূমিকম্প হয়। গত বছরের নভেম্বরে দেশটির পশ্চিম জাভায় ৫ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পে ৬০২ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

তার আগে ২০০৪ সালে সুমাত্রায় ৯ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প এবং তৎ পরবর্তী সুনামিতে এই অঞ্চলে দুই লাখ ২০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলেন। এদের মধ্যে এক লাখ ৭০ হাজার মানুষ ছিলেন ইন্দোনেশিয়ার।

সূত্র: কালভেলা
আইএ/ ০৮ নভেম্বর ২০২৩





আরো খবর: