বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

ইউক্রেনের বন্দিসহ রুশ সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, ৭৪ যাত্রীর সবাই নিহত

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২৪
ইউক্রেনের বন্দিসহ রুশ সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, ৭৪ যাত্রীর সবাই নিহত


মস্কো, ২৪ জানুয়ারি – রাশিয়ার বেলগোরোদ অঞ্চলে ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দিদের বহনকারী প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় এর সব আরোহী নিহত হয়েছেন। অঞ্চলটির গভর্নর ব্যাচেস্লাভ গ্ল্যাডকভ তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছে রুশ বার্তা সংস্থা আরআইএ নভোস্তি।

এর আগে, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, রুশ সামরিক বাহিনীর আইএল-৭৬ মডেলের একটি পরিবহন প্লেন বুধবার (২৪ জানুয়ারি) মস্কো সময় বেলা ১১টার দিকে পশ্চিম বেলগোরোদ অঞ্চলে বিধ্বস্ত হয়। প্লেনটিতে ৬৫ জন ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দি, ছয়জন ক্রু এবং তিনজন এসকর্ট ছিলেন।

ইউক্রেনের সঙ্গে বিনিময়ের লক্ষ্যে এসব যুদ্ধবন্দিকে সীমান্তবর্তী বেলগোরোদ অঞ্চলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

বেলগোরোদের গভর্নর জানিয়েছেন, কোরোচানস্কি জেলায় একটি পরিবহন প্লেন বিধ্বস্ত হয়েছে। এটি একটি জনবহুল এলাকার কাছে মাঠের মধ্যে পড়েছিল। এতে প্লেনে থাকা সব আরোহী নিহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল ঘিরে রাখা হয়েছে, জরুরি পরিষেবাগুলো কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। প্লেন বিধ্বস্তের কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত শুরু হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের বরাতে আরআইএ নভোস্তি জানিয়েছে, প্লেন বিধ্বস্ত হওয়ার আগে প্রায় এক মিনিটের ব্যবধানে দুটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গিয়েছিল।

রাশিয়ার ডুমা প্রতিরক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান আন্দ্রেই কার্তাপোলভ চেম্বারের একটি সভায় দাবি করেছেন, আসন্ন যুদ্ধবন্দি বিনিময় সম্পর্কে জানত ইউক্রেন সরকার। তা সত্ত্বেও প্লেনটিতে তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, মার্কিন প্যাট্রিয়ট কমপ্লেক্স অথবা জার্মান আইআরআইএস টি থেকে এসব ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল।

তিনি জানান, এই ঘটনার পরে যুদ্ধবন্দি বহনকারী দ্বিতীয় প্লেনটি ফিরে যেতে সক্ষম হয়, তিনি যোগ করেন।

সূত্র: জাগো নিউজ
আইএ/ ২৪ জানুয়ারি ২০২৪





আরো খবর: