শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২২ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

চকরিয়ায় মেদাকচ্ছপিয়া বনবিটের পাগলিরবিলে বনবিভাগের অভিযান, ২টি ড্রেজার মেশিন ধ্বংস

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: বুধবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২২

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া::

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফুলছড়ি রেঞ্জের অধীন চকরিয়া উপজেলার মেদাকচ্ছপিয়া বনবিটের পাগলিরবিল এলাকায় সংঘবদ্ধ বালু খেকো সিন্ডিকেটের ড্রেজার মেশিন রাজত্ব বেড়েই চলেছে। বনভূমি, খাল ও ছরায় অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন যেন নিত্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। বনবিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসন অভিযান চালিয়ে গেলেও থামানো যাচ্ছে না বালুখেকো সিন্ডিকেটের তৎপরতা।
সর্বশেষ বুধবার (১২ জানুয়ারী) সকাল ১১ টার দিকে মেদাকচ্ছপিয়া বিট কর্মকর্তার নেতৃত্বে পাগলিরবিল কোনাপাড়ায় অভিযান চালিয়ে ২টি ড্রেজার মেশিন ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।
এসময় জড়িতরা পলাতক থাকায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন মেদাকচ্ছপিয়া বিট কর্মকর্তা মোঃ শাহিন আলম। তিনি বলেন, ফুলছড়ি রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক দীপন চন্দ্র দাস ও সহকারী রেঞ্জ কর্মকর্তা ফারুক আহমদ বাবুলের নির্দেশনায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। তিনি বনজ সম্পদ ও পরিবেশ রক্ষায় বনবিভাগের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন।
জানা গেছে, পাগলিরবিলসহ বনবিভাগের বিভিন্ন সংরক্ষিত এলাকায় বালু খেকো সিন্ডিকেট ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করছে। এদিন খবর পেয়ে মেদাকচ্ছপিয়া বিটকর্মকর্তার নেতৃত্বে ঐ বিটের স্টাফ, হেডম্যান, ভিলিজার ও সিপিজি সদস্যদের নিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বন ও পরিবেশের ক্ষতি করে বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে দুটি ড্রেজার মেশিন ধ্বংস করা হয়েছে।
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ফুলছড়ি রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক দীপন চন্দ্র দাস জানান, প্রশাসনের সহায়তায় বন বিভাগের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যে বহু ড্রেজার মেশিন জব্দ সহ অবৈধ বালু মহাল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, দিবা রাত্রী অভিযান চালিয়ে কাঠ ভর্তি ডাম্পার আটক করা হয়। বালু ও বন খেকো সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে অসংখ্য মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরো খবর: