শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ১১:০৮ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

নাইক্ষ্যংছড়িতে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: সোমবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২২

শামীম ইকবাল চৌধুরী : বান্দরবানের ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ী এলাকার ঠান্ডা ঝিরি নাম গ্রামে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী মো. আবুল কালাম নামে এক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন বান্দরবান আদালত। একই আদেশে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়।

সোমবার (১০জানুয়ারী) সকাল বেলা জেলা ও দায়রা জজ মো. এহ্সানুল হকের আদালত এ রায় দিয়েছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আবুল কালাম (৪৫) নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩নং ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ি ঠাণ্ডা ঝিরি এলাকার মৃত মকবুল আলীর ছেলে।

জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১৭ মার্চ মো. আবুল কালাম তার বসতবাড়িতে পারিবারিক কলহের জেরে তার দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে মাথায় সজোরে আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়। এঘটনায় নিহত মনোয়ারা বেগমের পিতা মো. সৈয়দ আলম বাদী হয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় জামাতা মো. আবুল কালামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরবর্তী পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর মো. আবুল কালামকে অভিযুক্ত করে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিদেন দাখিল করলে আসামি মামলার যুক্তিতর্ক শুনানীর পর ২০২১ সালের ৩ নভেম্বর আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) বেদারুল আলম জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামি মো. আবুল কালাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‌‘আসামি মো. আবুল কালাম তার স্ত্রীকে হত্যা করে। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণে বিষয়টি প্রমাণিত হয়। আদালতের বিচারক তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন।
বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকার সচেতন মহলদের মধ্য আলোচনায় উঠে আসে হত্যার সঠিক বিচার হয়েছে বলে মন্তব্য করেন অনেকে।


আরো খবর: