তারিখ: মঙ্গলবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:

মোহাম্মদ আবুতাহের মহেশখালী::

মহেশখালী উপজেলার অন্তর্গত ক্রাইমজোন হিসাবে পরিচিত কালারমারছড়া ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিনের চলমান বিরোধে গত ১৩ অক্টোবর রবিবার গভীর রাতে কালারমারছড়া ইউপিস্থ ফকিরজুম পাড়ার পাহাড়ি এলাকায় সম্প্রতি সময়ে আত্মসমর্পণ করে জামিনে বেরিয়ে আসা বেশ কয়জন দাগী সন্ত্রাসী ও মোহাম্মদ শাহঘোনার রশিদ বাহিনীর ৭/৮ জনের অস্ত্রধারীরা ব্যাপক গোলাগুলি করে।

এমন সময় পাহাড়ি এলাকা দিয়ে রাত অনুমান ২ঘটিকার সময় মামার বাড়ি থেকে দাওয়া খেয়ে বাড়ি ফিরছিলো মিজান।

এসময় সস্ত্রাসীদের ছুড়া গুলিতে গুরুতর আহত হন তিনি। আহত অবস্থায় তাঁকে প্রথমে চকরিয়া পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২দিন চিকিৎসাধিন থাকার পর আজ মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৫টায় আহত মিজান(৩৫) মৃত্যুবরণ করে।

এদিকে তার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মুহুর্তের মধ্যে এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

নিহত মিজান(৩৫) কালামারছড়া মোঃ শাহ ঘোনা গ্রামের জৈনিক মোশতাক আহমদের এর পুত্র বলে জানাগেছে।

নিহত মিজানের পরিবারের দাবি কালারমারছড়া চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা আমার ছেলেকে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করেছেন।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান,এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। দতন্ত ক্রমে সন্ত্রাসীদের বিরোদ্ধে আইনানুগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Share: