শিরোনাম :
টেকনাফে পুলিশের অভিযানে মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার চকরিয়ায় বসতঘরে মিলল ভূয়া পাসপোর্ট, এনআইডি ও সীলমোহর, আটক-১ জেলে পরিবারে চলছে নিরব দুর্ভিক্ষ কুতুবদিয়া থানার নতুন ওসি হিসেবে যোগদান করলেন ওমর হায়দার কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় ৩ পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৭ জনের নামে মামলা সৌদিতে কারগাড়ির চাপায় চকরিয়ার যুবক নিহত, বাড়িতে শোকের মাতম চকরিয়ায় যাত্রীবেশী দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে টমটম চালক খুন জেলা আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির অবশান, শেষে চকরিয়ায় এমপি জাফর ও লিটুকে গণসংবর্ধনা চকরিয়ায় বনের উপর নির্ভশীল ভিসিএফ সদস্যদের মধ্যে ক্ষুদ্র মূলধনের ২২ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪:৫৯ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

৪ হাজার পিস ইয়াবাসহ ডিবি কর্মকর্তা গ্রেফতার

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ২৫, ২০১৮ ৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ২৫, ২০১৮ ৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজার পোস্ট ডটকম ::
রাঙ্গামাটি জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) এএসআই নাছির উদ্দিনকে ৪ হাজার পিস ইয়াবাসহ কুমিল্লা থেকে আটক করা হয়েছে। এসময় কাউসার নামে তার এক সহযোগিকেও আটক করা হয়।

মঙ্গলবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কাঠেরপুল এলাকা থেকে তাদের আটক করা হলেও তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া নিয়ে বুধবার দুপুর পর্যন্ত চলে নানা নাটকীয়তা।

পরে দুপুরের দিকে পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর তাকে ইয়াবা পাচার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। নাছির উদ্দিন জেলার চান্দিনা উপজেলার দোতলা গ্রামের টেম্পোচালক নূরু মিয়ার ছেলে। তার সহযোগী কাউসার কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার প্রতাপপুর গ্রামের বাসিন্দা।

বুধবার তাদেরকে কুমিল্লা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবা পাচার বিষয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের কাঠেরপুল এলাকায় মঙ্গলবার রাতে থানা পুলিশের একটি দল টহল দিচ্ছিলেন। এসময় মোটরসাইকেলযোগে দুইজন ব্যক্তি দ্রুতগতিতে ঢাকা অভিমুখে যাচ্ছিলেন। এতে টহল পুলিশের সন্দেহ হওয়ায় মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে তাদের দেহ তল্লাশি চালিয়ে ৪ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় এবং মোটরসাইকেলটি আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানা পুলিশের ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, ইয়াবাসহ নাছিরকে আটকের পর প্রথমে তিনি পরিচয় গোপন রাখলেও গ্রেফতার এড়াতে পরে নিজেকে রাঙ্গামাটি ডিবির এএসআই হিসেবে পরিচয় দেয়। কিন্তু তিনি ডিবি পুলিশের এএসআই কি-না তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য তাকেসহ গ্রেফতারকৃত ২ জনকে কুমিল্লা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পাঠানোর পরপরই তাকে জিজ্ঞাসাবাদে ডিবিতে চাকরির অন্তরালে মাদক ব্যবসার নানা তথ্য বেড়িয়ে আসে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চান্দিনার দোতলা গ্রামের নূরু মিয়ার ছেলে নাছির উদ্দিন ২০০৬ সালে কনস্টেবল পদে পুলিশে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে তিনি সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) পদে পদোন্নতি লাভ করে। তারপর থেকে রাতারাতি অর্থনৈতিক পরিবর্তন ঘটতে থাকে তার। মাত্র দুই বছরের ব্যবধানে ২টি গাড়ি, নতুন বাড়ি এবং অনেক জমি-জমা কিনেন মাদক ব্যবসায় জড়িত ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

কেরনখাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ জানান, পুলিশের এএসআই পদে চাকরি করে মাত্র ২ বছরের মধ্যে গাড়ি-বাড়ির মালিক হয়ে যাওয়ার বিষয়টি যেন ‘আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হওয়ার মতো ঘটনা’। এখন বুঝা যাচ্ছে পুলিশে চাকরির আড়ালে তিনি (নাছির) জমজমাট মাদক ব্যবসায় জড়িত ছিলেন।

কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি নাছির উদ্দিন মৃধা জানান, ইয়াবাসহ থানা পুলিশের হাতে আটক নাছিরের পরিচয়ের বিষয়টি রাঙ্গামাটি ডিবি থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। তাকে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করা হতে পারে।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, নাছির উদ্দিন পুলিশের কাছে যেসব তথ্য দিয়েছেন তা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে চান্দিনা থানায় মামলা হয়েছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::

সর্বশেষ