শিরোনাম ::
সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

১১টি ক্যাম্পে মাদক,অস্ত্র ও সন্ত্রাস রোধে কঠোর অবস্থানে ৮এপিবিএন

ইমরান আল মাহমুদ
আপডেট: বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২২

ইমরান আল মাহমুদ:
১১টি ক্যাম্পে মাদক,অস্ত্র ও সন্ত্রাস রোধে কঠোর অবস্থানে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন। দেশী-বিদেশী অস্ত্র,ইয়াবা,অবৈধ স্বর্ণালংকার, মিয়ানমারের মুদ্রা সহ গত একবছরে ৪৭৮জন সন্ত্রাসী আটক করা হয়েছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বসবাসরত স্থানীয় ও আশ্রিত রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তায় ৮এপিবিএন সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বুধবার(১৯ জানুয়ারি) দুপুরে উখিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যম কর্মীদের মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন ৮এপিবিএন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সিহাব কায়সার খান।

তিনি বলেন” ক্যাম্পে রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের নিরাপত্তার দায়িত্বে ৮এপিবিএন সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মাদক,অস্ত্র সহ সকল অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বিগত এক বছর ধরে সফলতার সহিত ৮এপিবিএন দায়িত্ব পালন করে আসছে। এতে সাংবাদিকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য।”

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সিহাব কায়সার খান আরও বলেন,” সম্প্রতি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ক্যাম্পে যেকোনো দুর্যোগময় মুহুর্তে সবার আগে দায়িত্বরত এলাকায় কিছু হলে তাৎক্ষণিক ৮এপিবিএন সাড়া দেয়। অগ্নিকাণ্ডের সময় ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালানোর ফলে নিরাপদে মানুষ সরে আসতে পারে। ভবিষ্যতেও এটার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবে ৮এপিবিএন।”

মতবিনিময় সভার শুরুতে বিগত এক বছরের কার্যক্রম নিয়ে রিপোর্ট পেশ করেন ৮এপিবিএন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(মিডিয়া) মো. কামরান হোসেন। তিনি বলেন” রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে দায়িত্বরত ১১টি ক্যাম্পে ৮টি ফায়ার আর্মস,২৬রাউন্ড গোলাবারুদ ১৩২টিদেশীয় অস্ত্র ৯০৮.৮২গ্রাম অবৈধ স্বর্ণলংকার,অবৈধ ৫৮লাখ ৬হাজার ৮০টাকা ৫০হাজার টাকার জালনোট,৩লাখ ৩৫হাজার ১৮৫কিয়াত মিয়ানমারের মুদ্রা, ৮লাখ ৬৬হাজার ৫শ ৮৩পিস ইয়াবা,২৮৯ গ্রাম ইয়াবার গোড়া(পাউডার),১১দশমিক ৩০লিটার অ্যালকোহল,১কেজি ১৪গ্রাম গাঁজাসহ তালিকাভুক্ত ৪৭৮জন সন্ত্রাসী আটক করা হয়।”

তিনি আরও বলেন,”স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে ৮এপিবিএন সর্বদা নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। সম্প্রতি কক্সবাজার বিমানবন্দর ও কুতুপালং ট্রানজিট ক্যাম্পের দায়িত্বও ন্যস্ত করা হয়েছে। ১১ টি ক্যাম্পের ৬৪টি ব্লক ৭৭৩টি সাব ব্লকে আশ্রিত ৭৫হাজার ৯শ ৩০টি বাড়ির ৩লাখ ৬২হাজার ২শ ১৮জন রোহিঙ্গার নিরাপত্তায় ৮এপিবিএন বদ্ধপরিকর।”
মতবিনিময় সভা শেষে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের ৮এপিবিএন’র সম্মাননা কয়েন তুলে দেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সিহাব কায়সার খান।


আরো খবর: