শিরোনাম ::
উখিয়ার রোহিঙ্গা হিন্দু ক্যাম্পের দুর্গোৎসবে অর্থ সহায়তা প্রদান করেছে কোস্ট ফাউন্ডেশন। উখিয়ায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত কোটবাজার সিএনজি মালিক-চালক সমিতির কর্মকর্তাদের দুর্নীতি ও উপজেলা সমবায় অফিসারের স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন উখিয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে কর্মশালা অনুষ্ঠিত সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ!
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

স্কুল কলেজ যেভাবে আছে,সেভাবেই চলবে

ডেস্ক নিউজ
আপডেট: সোমবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২২

বর্তমানে যেভাবে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় চলছে সেভাবেই চলবে বলে জানিয়েছেন কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা।

রবিবার (৯ জানুয়ারি) রাতে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকের পর তিনি এই তথ্য জানান।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিলে তার প্রভাব অনেক বেশি জানিয়ে ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা বলেন, ‘ স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় যদি আমরা বন্ধ করে দেই এবারও, তাহলে ইম্পেক্ট (প্রভাব) আবার অনেক বেশি। আবার খোলা রেখে যদি সংক্রমণ বেড়ে যায় তাহলেও সমস্যা।’

তিনি বলেন, তাই বর্তমান পরিস্থিতিতে সীমিত আকারে যেভাবে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় চলছে, সেটা চলবে এবং খুব ঘনঘন নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব, পুরোটাই নির্ভর করছে অবস্থার ওপর।’

বৈঠকে শিক্ষার্থীদের টিকাদান কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা প্রশ্নে ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা বলেন, ‘এখন টিকাদান কর্মসূচি চলছে। একে আরও জোরদারকরণ এবং আরও কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়ন করার মাধ্যমে আমরা যেন সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি, সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।’

তবে যেহেতু এখন সংক্রমণের হার ৬ শতাংশের বেশি, তাই তাজে বিবেচনায় রেখে এই ব্যবস্থাগুলো নিয়ে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় যেভাবে চলছে সেভাবেই চলবে। তবে যদি কোনও কারনে সংক্রমণ পরিস্থিতি খারাপের দিকে যায়, তাহলে সাথে সাথে বন্ধ করার বিষয়ে চিন্তা করা হবে বলে জানান অধ্যাপক সহিদুল্লা।
বাংলা ট্রিবিউন


আরো খবর: