শিরোনাম :
টেকনাফে পুলিশের অভিযানে মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার চকরিয়ায় বসতঘরে মিলল ভূয়া পাসপোর্ট, এনআইডি ও সীলমোহর, আটক-১ জেলে পরিবারে চলছে নিরব দুর্ভিক্ষ কুতুবদিয়া থানার নতুন ওসি হিসেবে যোগদান করলেন ওমর হায়দার কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় ৩ পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৭ জনের নামে মামলা সৌদিতে কারগাড়ির চাপায় চকরিয়ার যুবক নিহত, বাড়িতে শোকের মাতম চকরিয়ায় যাত্রীবেশী দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে টমটম চালক খুন জেলা আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির অবশান, শেষে চকরিয়ায় এমপি জাফর ও লিটুকে গণসংবর্ধনা চকরিয়ায় বনের উপর নির্ভশীল ভিসিএফ সদস্যদের মধ্যে ক্ষুদ্র মূলধনের ২২ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৪:৫৭ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

সৌদী আরবে প্রবাসী নির্যাতন ও চাঁদাবাজির নেপথ্য নায়ক ঈদগাঁওর জসিম

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ৫, ২০১৮ ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ৫, ২০১৮ ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ

বিশেষ প্রতিবেদক ::
সৌদী আরবে অবস্হানরত বৃহত্তর ঈদগাঁও বাসীদের কাছে মূর্তিমান আতংক হয়ে দেখা দিয়েছেন ঈদগাঁও’র জসিম উদ্দীন। তার নানা অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন প্রবাসীরা। মক্কা নগরীতে অবস্হানরত এ যুবক সৌদী কফিল ও অপরাধীদের সাথে হাত মিলিয়ে বিভিন্নভাবে প্রবাসীদের হয়রানি করে আসছেন বলে জানা গেছে। প্রবাসীদের দ্বারা কাজ করিয়ে টাকা না দেয়া, ভিসার মেয়াদ বাড়ানো ও কফিল ট্রান্সফার করিয়ে দেয়ার নামে টাকা নিয়ে আত্নসাৎ, সৌদী পুলিশের ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি, কাজের চুক্তির নামে প্রতারনা, কফিলকে প্রভাবিত করে ভিসা বাতিল করানো, নিরীহ লোকদেরকে মারধর ও আরো বিভিন্ন ভাবে প্রবাসীদের হয়রানি এবং প্রতারনা করে আসছে জসিম। এমনটিই জানিয়েছেন ভূক্তভোগী প্রবাসীরা। অভিযুক্ত জসিম কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও ইউনিয়নের পশ্চিম ভাদিতলা এলাকার বাসিন্দা আবু তাহের প্রকাশ আবু ছেরাং এর ছেলে। তারা ইতিপূর্বে গোমাতলী থেকে ঈদগাঁতে এসে বসতি স্হাপন করে বলে জানা গেছে।
ভূক্তভোগীরা জানান, দীর্ঘদিন সৌদী আরবে অবস্হানের ফলে সৌদি কফিলের সাথে ভাল সম্পর্ক গড়ে তোলেন জসিম। এ সম্পর্ককে কাজে লাগিয়ে সৌদিদের দ্বারা প্রবাসী বাঙ্গালীদের হয়রানী শুরু করেন তিনি। আর এতে ক্ষতিগ্রস্হ হচ্ছেন প্রবাসীরা।
ঈদগাঁও ইউনিয়নের সাতঘরিয়া পাড়ার বাসিন্দা ও সৌদী প্রবাসী বদিউল আলম জানান, ইতিপূর্বে জসিমের মনভূলানো কথায় প্রভাবিত হয়ে তার মাধ্যমে অন্য কফিলের নিকট আকামা ট্রান্সফার করেন তিনি। এরপর একটি নির্মান কাজ কন্ট্রাক্ট নিয়ে কাজ সম্পন্ন করার পর বিল নিতে গেলে কফিলের নামে ৫ হাজার রিয়াল দাবী করে জসিম। কিন্তু এরকম কোন পূর্বচুক্তি না থাকায় উক্ত টাকা দিতে বদি আলম অসম্মতি জ্ঞাপন করলে সৌদীদের সাথে আঁতাত করে কৌশলে জসিম পুরো টাকাই হজম করে ফেলে। এ নিয়ে উক্ত কফিলের সাথে ঝামেলা হলে অন্য কফিলের অধীনে ভিসা ট্রান্সফার করানোর কথা বলে জসিম। এতে সম্মত হয়ে অন্য কফিলের সাথে চুক্তি করে ভিসা ট্রান্সফার বাবদ সাত হাজার রিয়াল অগ্রীম প্রদান করেন বদি আলম। কিন্তু জসিম কৌশলে বদি আলমের পাসপোর্ট নিজের আয়ত্বে নিয়ে চার-পাঁচদিন মোবাইল বন্ধ করে রাখে ও অন্য লোক মারফত মোটা অংকের টাকা দাবী করে। এসব করতে করতে ট্রান্সফার তারিখ পেরিয়ে গেলে বদি আলমের ভিসা বাতিল হয়ে যায়। এদিকে যথাসময়ে পাসপোর্ট দিতে না পারায় বায়নাকৃত সাত হাজার রিয়ালও ফেরৎ দিতে অস্বীকৃতি জানায় কফিল। বাতিল হওয়া ভিসা পুনরায় বহাল করতে সৌদী আইন অনুসারে এ নিয়ে আদালতে মামলা করতে হয়েছে বলে জানা গেছে। ভিসা বাতিল হয়ে যাওয়ায় প্রকাশ্যে কোনপ্রকার কাজকর্ম করতে পারছেননা ভূক্তভোগী বদি আলম। আবার মামলা চলমান থাকায় দেশেও চলে আসতে পারছেননা। একদিকে বেকারত্ব ও অন্যদিকে মামলার খরচ, এনিয়ে প্রবাসে দুঃসহ জীবন যাপন করতে হচ্ছে। একই কায়দায় শতাধিক প্রবাসীর ভিসা নষ্ট করেছেন উপরোক্ত জসিম উদ্দীন। তার চাহিদামত মোটা অংকের চাঁদা দিয়ে অনেকে মূল্যবান ভিসা রক্ষা করেছেন বলে জানা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপর এক প্রবাসী জানান, “ভিসায় ত্রুটি আছে” বলে তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা দাবী করে জসিম। টাকা না দিলে একরাতে কফিলের সহায়তায় পুলিশ নিয়ে বাসায় হানা দেয় ও তাকে নাজেহাল করে।
জালালাবাদ ইউনিয়নের মিয়াজী পাড়ার বাসিন্দা ও সৌদী প্রবাসী ছমি উদ্দীন জানান, জসিম তার কাছ থেকে ৩৫ হাজার রিয়াল পাওনা আছে মর্মে দাবী করে অপর এক প্রবাসীকে মিথ্যা স্বাক্ষী দিতে বলে। কিন্তু সেই প্রবাসী মিথ্যা স্বাক্ষী না দেয়ায় সৌদীদের সাথে ষড়যন্ত্র করে তার ভিসা বাতিল করার ব্যবস্হা করে। ঐ প্রবাসী বর্তমানে চিন্তা ও উদ্বেগে অসুস্হ হয়ে গেছেন।
অপর প্রবাসী দেলোয়ার জানান, ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য কফিলের সাথে চুক্তি করে টাকা দেয়ার পর জসিমও মোটা অংকের টাকা দাবী করে। তার দাবীকৃত টাকা না দেয়ায় সৌদীকে আরো বেশী টাকার লোভ দেখিয়ে ভিসা বাতিল করায়। সূত্রে প্রকাশ, বৃহত্তর ঈদগাঁও এলাকার কোন প্রবাসী মক্কা নগরীতে বড় আকারের নির্মান কাজ কন্ট্রাক্ট নিলেই জসিম মোটা অংকের চাঁদা দাবী করেন। টাকা না দিলে উপরোক্ত উপায়ে হয়রানি এমনকি মারধরও করেন।
তার এসব কর্মকান্ড নিয়ে ঈদগাঁও ইউনিয়নের মেম্বার জিয়াউল হককে অবগত করেন ভূক্তভোগী প্রবাসী ও তাদের আত্নীয় স্বজন। এ ব্যপারে মেম্বার জিয়াউল হল জানান, জসিমের বিরুদ্ধে উত্থাপিত বিভিন্ন অভিযোগের ব্যাপারে তার ভাইদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা এ নিয়ে সৌদী আরবে অবস্হানরত জসিমের সাথে যোগাযোগ করেন। কিন্তু জসিম সবকিছু অস্বীকার করায় এ ব্যাপারে কোন সমাধান হয়নি। প্রবাসীরা জানান, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের মেম্বার আবু বকর ছিদ্দিক বান্ডি কিছুদিন আগে ওমরাহ করতে সৌদী আরবে গিয়েছিলেন।মক্কা নগরীতে অবস্হানকালে জসিমের এসব অপকর্মের বিষয়ে মেম্বারকেও অবহিত করেন প্রবাসীরা। উপরোক্ত ব্যাপারে আবু বকর ছিদ্দিক বান্ডি মেম্বার জানান, মক্কায় অবস্হানের সময় জসিমের বিরুদ্ধে ভূক্তভোগী প্রবাসীদের সাথে কথা বলে জসিমের বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও অপকর্মের সত্যতা পাওয়া গেছে। সৌদী আরবস্হ প্রবাসীদের রেজিষ্টার্ড সংগঠন কক্সবাজার প্রবাসী কল্যান সমিতির সভাপতি আবছার কামাল জানান, এসব অপকর্মের হোতা জসিমের বিরুদ্ধে সৌদী লেবার কাউন্সিলে ভূক্তভোগীরা অভিযোগ করলে সমিতির পক্ষ থেকে সর্বাত্নক সহযোগিতা করা হবে।
উপরোক্ত বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবী করেন জসিমের ছোটভাই জমির উদ্দীন। প্রবাসী নির্যাতন, চাঁদাবাজি ও ষড়যন্ত্রের হোতা জসিমের বিরুদ্ধে ব্যবস্হা নেয়ার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ও সৌদী আরবস্হ বাংলাদেশ দূতাবাসের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগীরা।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::

সর্বশেষ