তারিখ: সোমবার, ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share:

সিরিজের প্রথম টেস্টে স্বাগতিক শ্রীলংকার বিপক্ষে দাপট দেখিয়েছে ইংল্যান্ড। গল টেস্ট ২১১ রানের বড় ব্যবধানে জিতে সিরিজে এখন ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে ইংলিশরা। তারই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে আগামীকাল শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্টেও জয়ী হয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ নিশ্চিত করতে চায় সফরকারী ইংল্যান্ড। তবে সিরিজে পিছিয়ে পড়লেও ঘুড়ে দাঁড়ানোই প্রধান লক্ষ্য শ্রীলংকার। দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা আনতে মুখিয়ে আছে লংকানরা। ক্যান্ডিতে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে দশটায় শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে ও একমাত্র টি-২০ সিরিজ জিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে টেস্ট লড়াই শুরু করে ইংল্যান্ড। তবে শ্রীলংকার কন্ডিশনে টেস্ট সিরিজ হওয়াতে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে রাখা যাচ্ছিলো না। কিন্তু গল-এ সিরিজের প্রথম টেস্টে শ্রীলংকার বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করেছে ইংল্যান্ড। দু’ইনিংসেই ব্যাট হাতে তিনশ রানের কোটা স্পর্শ করেছে তারা। প্রথম ইনিংসে ৩৪২ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৩২২ রান করে দলটি। পক্ষান্তরে প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকার সংগ্রহ ছিলো ২০৩ রান। ফলে ম্যাচ জয়ের জন্য ৪৬২ রানের বড় টার্গেট পায় শ্রীলংকাসিরিজের প্রথম টেস্টে স্বাগতিক শ্রীলংকার বিপক্ষে দাপট দেখিয়েছে ইংল্যান্ড। গল টেস্ট ২১১ রানের বড় ব্যবধানে জিতে সিরিজে এখন ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে ইংলিশরা। তারই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে আগামীকাল শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্টেও জয়ী হয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ নিশ্চিত করতে চায় সফরকারী ইংল্যান্ড। তবে সিরিজে পিছিয়ে পড়লেও ঘুড়ে দাঁড়ানোই প্রধান লক্ষ্য শ্রীলংকার। দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা আনতে মুখিয়ে আছে লংকানরা। ক্যান্ডিতে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে দশটায় শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।

পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে ও একমাত্র টি-২০ সিরিজ জিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে টেস্ট লড়াই শুরু করে ইংল্যান্ড। তবে শ্রীলংকার কন্ডিশনে টেস্ট সিরিজ হওয়াতে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে রাখা যাচ্ছিলো না। কিন্তু গল-এ সিরিজের প্রথম টেস্টে শ্রীলংকার বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করেছে ইংল্যান্ড। দু’ইনিংসেই ব্যাট হাতে তিনশ রানের কোটা স্পর্শ করেছে তারা। প্রথম ইনিংসে ৩৪২ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৩২২ রান করে দলটি। পক্ষান্তরে প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকার সংগ্রহ ছিলো ২০৩ রান। ফলে ম্যাচ জয়ের জন্য ৪৬২ রানের বড় টার্গেট পায় শ্রীলংকা।

সেই লক্ষ্যে ছুটতে গিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে শ্রীলংকার। দুই স্পিনার ডান-হাতি মঈন আলী ও বাঁ-হাতি জ্যাক লিচেনের ঘুর্ণিতে ২৫০ রানেই গুটিয়ে যায় লংকানদের ইনিংস। ফলে রান বিবেচনায় ইংল্যান্ডের কাছে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হার মানে শ্রীলংকা।

এগিয়ে থাকায় আত্মবিশ্বাসী ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ম্যাচও জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করতে চায় ইংলিশরা। ক্যান্ডি টেস্টের আগে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট বলেন, ‘প্রথম টেস্টে আমাদের পরিকল্পনাগুলো ভালোভাবে কাজ করেছে। দ্বিতীয় ম্যাচের জন্যও আমাদের আলাদা পরিকল্পনা রয়েছে। প্রথম ম্যাচের মত দ্বিতীয় টেস্টটিও জিততে চাই আমরা। আমাদের সামনে সিরিজ জয়ের ভালো সুযোগ। তবে আমরা অনেক বেশি উচ্ছসিত নই। কারন শ্রীলংকার কন্ডিশনে ম্যাচ জিততে হলে শতভাগ পারফরমেন্স করতে হয়। আমরা আবারো সেটাই করতে চাচ্ছি। যা গল টেস্টে করেছিলাম।’

সিরিজ পিছিয়ে পড়ায় হতাশা গ্রাস করেনি শ্রীলংকাকে। দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা আনতে চায় তারা। জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী শ্রীলংকার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক পেসার সুরাঙ্গা লাকমাল। তিনি বলেন, ‘প্রথম টেস্টে আমরা ভালো করতে পারিনি। কেন পারিনি, এ ব্যাপারে আমরা অনেক আলোচনা করেছি। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই আমরা ঘুড়ে দাঁড়াবো। আমাদের লক্ষ্য সিরিজে সমতা আনা। এজন্য ব্যাটসম্যান-বোলারদের দুর্দান্ত পারফরমেন্স করতে হবে। বিশেষভাবে ব্যাটসম্যানদের। গল টেস্টে বড় বড় জুটি না হওয়াতেই আমরা ম্যাচ হেরেছি। আশা করবো, প্রথম ম্যাচের ভুল দ্বিতীয় টেস্টে হবে না’
প্রথম টেস্টে কুচকির ইনজুরিতে পড়েন শ্রীলংকার নিয়মিত অধিনায়ক চান্ডিমাল। ফলে দু’সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে চলে যেতে হয়েছে তাকে। তার পরিবর্তে দলে সুযোগ পেয়েছেন নতুন মুখ চারিথ আশালঙ্কা।এদিকে, ইনজুরি থেকে সুস্থ হয়ে অনুশীলনে ফিরেছেন ইংল্যান্ডের নিয়মিত উইকেটরক্ষক জনি বেয়ারস্টো। দ্বিতীয় টেস্টে তার খেলা নিশ্চিত। প্রথম টেস্টে বেয়ারস্টো না থাকায়, ইংল্যান্ডের উইকেটের পেছনে দায়িত্ব পালন করেছেন নতুন মুখ বেন ফোকস। নিজের অভিষেক ম্যাচের ইনিংসে ১০৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি। তাই বেয়ারস্টো একাদশে ফিরলেও বাদ পড়ার কোন সুযোগ নেই ফোকসের। বেয়ারস্টো ও ফোকসকে নিয়ে একাদশ সাজানো হবে বলে নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ডের টিম ম্যানেজমেন্ট।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::