শিরোনাম ::
উখিয়ার রোহিঙ্গা হিন্দু ক্যাম্পের দুর্গোৎসবে অর্থ সহায়তা প্রদান করেছে কোস্ট ফাউন্ডেশন। উখিয়ায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালিত কোটবাজার সিএনজি মালিক-চালক সমিতির কর্মকর্তাদের দুর্নীতি ও উপজেলা সমবায় অফিসারের স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন উখিয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে কর্মশালা অনুষ্ঠিত সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ!
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৫:৫২ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

সহিংসতা হ্রাস ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বৃদ্ধির জন্য উখিয়ায় স্কাসের মানববন্ধন

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর, ২০২১

দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদ জানিয়ে ” সাম্প্রদায়িক সহিংসতা হ্রাস ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বৃদ্ধি শীর্ষক” মানববন্ধন করেছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস)।
বৃহস্পতিবার বিকেলে ইউএনডিপির সহযোগীতায় উখিয়া শহীদ মিনার চত্বরে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস) এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
স্কাসের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন উখিয়ার সাংবাদিক পলাশ বড়ুয়া, ইমাম সমিতি উখিয়ার সভাপতি মৌলানা জাফর আলম, মধ্যরত্না রত্নাঙ্কুর বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ জ্যোতি প্রজ্ঞা ভিক্ষু, উখিয়া ভৈরব মন্দিরের পুরোহিত হারাধন চক্রবর্তী।
বক্তারা বলেন, কিছু সংখ্যক ব্যক্তি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে সারাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে।
অবিলম্বে এসব ঘটনার তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে, যাতে করে ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

বক্তারা আরো বলেন, গত কয়েক দিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে যে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলো দেখেছি, তাতে আমাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে।
যেখানে শিশুদের নির্যাতন করা হয়েছে। মানুষকে কোপানো হয়েছে। রংপুরের পীরগঞ্জের অনেকগুলো বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছে। নির্যাতিত অসহায় মানুষকে আমরা রাস্তায় দেখেছি। এরকম বাংলাদেশ আমরা কখনো চাইনি।
তারা বলেন- মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতা থাকতে পারে না। যারা এসব জঘন্য কাজ করছে, সরকারকে তাদের কঠোর হাতে দমন করতে হবে।
বক্তারা এসব ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয় সেজন্য সরকারের প্রতি জোরালো আহ্বান জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- আউট অব স্কুল চিলড্রেন প্রকল্পের হেড অব মনিটরিং এস এম মামুন, স্কাসের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর তৌহিদুল মোস্তফা, আউট অব স্কুল চিলড্রেন প্রকল্পের জেলা ব্যবস্থাপক তোফাজ্জল হোসেন, প্রকল্প সমন্বয়কারী হাফিজ-আল- আসাদ, স্কাসের বিভিন্ন প্রকল্পের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও উখিয়ার সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবর্গ।


আরো খবর: