শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন

লোহাগাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬ দিনে ৪৬ জন ডায়রিয়ার রোগী ভর্তি

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: জুন ২১, ২০১৮ ৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: জুন ২১, ২০১৮ ৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ

রায়হান সিকদার,লোহাগাড়াঃ
চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঈদের দিন শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার (বৃহস্পতিবার) পর্যন্ত শিশুসহ ৪৬ জন ডায়রিয়ার রোগী ভর্তি হয়েছে বলে হাসপাতার সুত্রে প্রকাশ। বিষয়টি উক্ত প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের নার্সিং সুপারভাইজার প্রদীপ কুমার দে।
সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার (১৬ জুন) পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন থেকে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়ার রোগীর সংখ্যা ভর্তি হতে থাকে। তাদের মধ্যে অনেকে শিশু। দীর্ঘ ১ মাস রোজা রাখার পর খাবারের পরিবর্তনের সাথে সাথে ডায়রিয়ার প্রভাবটা বৃদ্ধি পায় বলে স্থানীয়দের অভিমত।
সরেজমিনে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, ডায়রিয়া ওয়ার্ডে রোগীদের তিল পরিমান টাই নেই। ৫১ শষ্য বিশিষ্ট হাসপাতালের মেঝেতেও রোগীদের অবস্থান।
লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্রে জানা যায়, ঈদের দিন শনিবার ডায়রিয়ার রোগী ভর্তি হয় ৬ জন, রোববার ৭ জন, সোমবার ৯ জন, মঙ্গলবার ৭ জন, বুধবার ১৬ জন ও বৃহস্পতিবার দুপি ১ টা পর্যন্ত ১জন। শিশুসহ মোট ৪৬ জন ডায়রিয়ার রোগী ভর্তি হয়।
হাসপতালে ডায়রিয়ার রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে আতংক বিরাজ করছে।
হাসপাতালে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুর অভিভাবক বুলবুল বলেন, ছেলেকে নিয়ে ২ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছি। ছেলের উন্নতির পথে। তবে হাসপাতালে দিনদিন ডায়রিয়ার রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে।
লোহাগাড়া উপজেল স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা:মোহাম্মদ হানিফ বলেন, আবাহাওয়া ও খাবারের পরিবর্তনের সাথে সাথে স্বাভাবিকের চেয়ে পাতলা পায়খানা বেশি হয়। এটি এতো মহামারি নন। তবে খাবারের পরিবর্তনের ফলে এটি হয়ে থাকে।এটি তেমন ঝুকিপূর্ণ রোগ নয়। এলাকাবাসীর ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। রমজানের পরে অনেকের কাবার পরিবর্তন হয়েছে। বদ হজমের ফলে অনেকের পাতলা পায়খানা হওয়ার ফলে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::