শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে কর্মশালা অনুষ্ঠিত সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:১০ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

রামুর দুর্গম ব্যাঙডেবা গ্রামের বাসিন্দারা পেলেন করোনার টিকা

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১

সোয়েব সাঈদ, রামু::

কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের দূর্গম ব্যাংডেবা গ্রামে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়–য়ার নির্দেশনায় বুধবার ব্যাঙডেবা গ্রামবাসীকে টিকা প্রদান করা হয়। বুধবার (২২ ডিসেম্বর) ভোরে স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। অতি দূর্গম পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে বেলা গড়াতেই স্বাস্থ্য বিভাগের টিম ওই গ্রামে পৌঁছলে এলাকাবাসীর মাঝে দেখা যায় খুশির ঝিলিক।
টিকা প্রদানের ব্যতিক্রমী এ কার্যক্রমে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রিপন চৌধুরী, সিনিয়র স্টাফ নার্স শিউলি রাণী দে, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক অরিন্দ্র বড়ুয়া, স্বাস্থ্য সহকারী স্বপন পাল, স্বাস্থ্য সহকারী নজরুল ইসলাম।
ব্যাংডেবা গ্রামের বাসিন্দা হেডম্যান আলী আহমদ জানান- গ্রামের বাসিন্দারা অধিকাংশ দরিদ্র। গাড়ি ভাড়া আর দূর্গম পথ পাড়ি দিয়ে টিকা নেয়া এখানকার নারী-পুরুষের জন্য ছিলো কষ্টসাধ্য। এখন স্বাস্থ্য বিভাগের টিকা পেয়ে গ্রামবাসী আনন্দিত। এজন্য তিনি স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়–য়া জানান – ব্যাঙডেবা গ্রামটি কাছাকাছি অবস্থানে হলেও অতি দুর্গম হওয়ায় প্রায় ৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি সেখানে যেতে হয়। দূরত্ব বেশী হওয়ায় এক গ্রামের দরিদ্র বাসিন্দারা টিকা নিতে যাতে ভোগান্তির শিকার না হন, সেজন্যই গ্রামে গিয়ে বাসিন্দাদের টিকা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান- বুধবার গ্রামের ১২১ জন নারী-পুরুষকে কোভিড-১৯ এর টিকা দেয়া হয়েছে। যা অব্যাহত থাকবে। মহৎ এ উদ্যোগ সফলভাবে সম্পন্ন করার তিনি রামু স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে নীরবে কাজ করে যাওয়া রামু স্বাস্থ্য বিভাগের সৈনিকদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।


আরো খবর: