শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:০২ পূর্বাহ্ন

রামুর গর্জনিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় আ.লীগ নেতা আহত

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ৩১, ২০১৮ ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ৩১, ২০১৮ ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ

হাবিবুর রহমান সোহেল ::
কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন আওয়ামী লীগ নেতা গুরুত্বর আহত হয়েছেন। তাঁর নাম ছৈয়দ আলম (৩২)। তিনি গর্জনিয়া ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তাঁকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১মে) গ্রামের জামে মসজিদে ফজরের নামাজ শেষ করে রাস্তায় হাটার সময় টাইমবাজারের কাছে ১২-১৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী ছৈয়দ আলমের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা তাঁকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে ও বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন। পরে স্থানীয় লোকজন মূমূর্ষ অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য শামশুল আলম মন্ডল, গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরী, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শংকর শর্মা, পাঁচ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো.মহিউদ্দিন’সহ অন্যান্যরা আহত আওয়ামী লীগ নেতাকে দেখতে গতকাল দুপুরে হাসপাতালে ছুটে যান। এসময় তাঁরা নানা বিষয়ে খোঁজখবর নেন।

চিকিৎসাধিন অবস্থায় ছৈয়দ আলম জানান, সশস্ত্র সন্ত্রাসীদেরকে তিনি স্পষ্টভাবে চিনতে পেরেছেন। এ বিষয়ে আইনের আশ্রয় নিবেন। জানতে চাইলে রামু থানার ওসি একেএম লিয়াকত আলী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতার ওপর হামলার ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নাইক্ষ্যংছড়িতে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন ও
পাহাড় কাটায় চার ব্যক্তিকে জরিমানা

হাবিবুর রহমান সোহেল, নাইক্ষ্যংছড়ি ৩১/৫/১৮
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী ইউনিয়নে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে, অবৈধভাবে পাহাড়ী ছড়া থেকে বালি উত্তোলন ও পাহাড় কাটার দায়ে- পৃথক অভিযান পরিচালনা করেছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। গত বুধবার বিকেলে ওই অভিযান চলে। স্থানীয় সূত্র জানায়, গত বুধবার বিকেলে বাইশারীর কবির কোম্পানির রাবার বাগান কার্যালয়ে পাহাড় কাটার দায়ে আবদুল্লাহ (৫৫) ও আবদুর শুক্কুর (৩৬) নামে দুজন শ্রমিককে আটক করা হয়। দ্বিতীয় অভিযানে নারিচ বুনিয়া সড়কের পাশে মো: ইসমাইল ও আয়ুব আলী নামে দুই ব্যক্তিকে বালি মওজুদ এবং গর্জন ছড়া থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করার দায়ে মেশিনটি জব্দ ও তাদের আটক করা হয়। পরে আটককৃত চার শ্রমিককে উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতের বিজ্ঞ বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম সমরওয়ার কামাল পৃথক আইনে ২০ হাজার করে ৪০ হাজার টাকার অর্থদÐ দেন। এসময় কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সাইফুল আশ্রাবও উপস্থিত ছিলেন। সাইফুল আশ্রাব জানান, এ অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::