শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

রামুর ঈদগড় বনাঞ্চলে যুবকের অর্ধগলিত মৃতদেহ উদ্ধার

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

সোয়েব সাঈদ, রামু::

কক্সবাজারের রামুর ঈদগড় ইউনিয়নের পাহাড়ি বনাঞ্চল থেকে নুরুল হাসান বাপ্পী নামের এক যুবকের অর্ধগলিত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে ঈদগড় ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ছগিরাকাটা এলাকার আবদুল মাবুদের ছেলে।

রবিবার (১৩ ফেব্রæয়ারি) দুপুরে ঈদগড় রেঞ্জের তুলাতলী বিটের পাশে বেইল্যা বাপের কাটা নামক এলাকায় গলায় লতা প্যাছানো অবস্থায় নুরুল হাসান বাপ্পীর (১৯) মৃতদেহ দেখতে পায় পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা। পরে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

তার স্বজনরা জানান- গত ৯ ফেব্রয়ারি বাপ্পী বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ ছিলেন। স্বজনরা তাকে বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুজি করছিলেন। অবশেষে রবিবার খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে ওই স্থানে দূর্গন্ধ পেয়ে মৃতদেহটির সন্ধান পান তারা।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান রামু থানার উপ-পরিদর্শক জাফর উল্যাহ ও হাসান মাহমুদ। তারা জানান- কয়েকদিন আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাচ্ছে না। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে সঠিক কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে। এজন্য মৃতদেহ সুরতহাল প্রতিবেদন সম্পন্ন করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে
এদিকে নিহত বাপ্পীর ভাই রেজাউল করিমও মৃত্যুর সঠিক কারণ জানাতে পারেননি।

তবে এলাকাবাসীর ধারণা বাপ্পী পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করতে পারে।
জানা গেছে- বাপ্পী পেশায় মাছ ব্যবসায়ি ছিলেন। সম্প্রতি ব্যবসায় লোকসান হয় তার। এ কারণে সে মানসিক অস্থিরতায় ভুগছিলেন।


আরো খবর: