তারিখ: শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:


নয়া দিল্লী, ০৯ নভেম্বর- সুপ্রিম কোর্টের অযোধ্যা মামলার রায়ের পর এবার ক্ষমতাসীন বিজেপির শরিক ও কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের (আরএসএস) প্রধান লক্ষ্য রামমন্দির নির্মাণ। আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে অযোধ্যায় পৃথক জমিতে মসজিদ নির্মাণ নিয়ে সরাসরি কোনও মন্তব্য করেননি তিনি। বিষয়টি ছেড়ে দিয়েছেন সরকারের ওপর। দেশের নাগরিকদের কাছে শান্তি, সম্প্রীতি রক্ষার আবেদন জানিয়ে আরএসএস প্রধান বলেছেন, ‘এই রায়কে কারও জয় বা পরাজয়ের দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখা উচিত হবে না।’

অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায় ঘোষণার আড়াই ঘণ্টা পর শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে নাগপুরে আরএসএসের সদর দফতরে সংবাদ সম্মেলন করেন মোহন ভগবত। দীর্ঘসময় ধরে চলা এই মামলায় সহযোগিতা করার জন্য সবকটি পক্ষ ও ভারতীয় নাগরিকদের অভিনন্দন জানান।

রায়ের পর আরএসএসের লক্ষ্য কী হবে, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ভগবত বলেন, ‘এখন আমাদের লক্ষ্য হবে অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ। আমরা রামমন্দির বানাবো অযোধ্যায়। আর সেটা সকলকে নিয়েই আমাদের করতে হবে।’

আরএসএস প্রধান বলেন, ‘অতীতের সব বিরোধ, বিবাদ এখন ভুলে যেতে হবে। আদালতের এই রায়ের পর সব মিটে গেছে। কারণ সব পক্ষের মতামত শুনেই মামলায় এই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এবার আইন ও সংবিধানকে আমাদের সকলেরই মর্যাদা দিতে হবে।’

অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির নির্মাণের পক্ষে সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয়ায় মুসলিমদের সংগঠন ‘সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড অসন্তোষ প্রকাশ করে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড বলছে, রায়ের বিরুদ্ধে পরবর্তী কি পদক্ষেপ নেয়া যায়; সে বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

শনিবার ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জণ গগৈ বিতর্কিত এই মামলার রায় ঘোষণা করার পর সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী জাফরায়েব জিলানি বলেন, ‘আমরা সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সম্মান জানাই। তবে আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট নই। পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে আমরা চিন্তাভাবনা করব।’

পৃথক জমিতে মসজিদ গড়া নিয়ে সরাসরি কোনও মন্তব্য না করলেও আরএসএস প্রধান বলেছেন, ‘সেটা তো একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে হবে। যে প্রক্রিয়ার দায়িত্বে থাকবে সরকার। আমরা (আরএসএস) সরকার নই, একটি সংগঠন। সেই প্রক্রিয়ার ওপর আমাদের সকলকেই ভরসা রাখতে হবে।’

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট রায়ে বলেছে, অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রামমন্দির হবে। বিকল্প পাঁচ একর জমি পাবে মুসলিমদের পক্ষের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। রায়ের পর মামলার অন্যতম পক্ষ নির্মোহী আখড়ার মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা দেড়শো বছর ধরে যে লড়াই করছি তাকে স্বীকৃতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

তিনি এর জন্য সুপ্রিম কোর্টের প্রতি নির্মোহী আখড়ার কৃতজ্ঞ প্রকাশ করে বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার শ্রী রামের জন্মস্থানে তার নামে মন্দির নির্মাণের জন্য যে ট্রাস্ট গঠন করবে তাতে নির্মোহী আখড়ার প্রতিনিধি থাকবেন। রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন হিন্দু মহাসভাও।

হিন্দু মহাসভার আইনজীবী বরুণকুমার সিং বলেন, ‘এটা ঐতিহাসিক রায়। রায়ে বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের বার্তা রয়েছে।’ সংগঠনটির আরেব আইনজীবী বলেছেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যার গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় মুসলিমদের ৫ একর বিকল্প জমি দিতে বলেছে। সকলকে নিয়ে চলারই বার্তা দেয়া হয়েছে তাতে।’

আর/০৮:১৪/০৯ নভেম্বর




Share:
error: কপি করা নিষেধ !!