তারিখ: মঙ্গলবার, ১৯শে মার্চ, ২০১৯ ইং, ৫ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

Share:

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে ফিলিপাইনকে ১০ গোলে বিধ্বস্ত করেন মারিয়া মান্দা-মনিকা চাকমারা। উজ্জ্বল করেন সেপ্টেম্বরে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় নারী চ্যাম্পিয়নশিপের মূল পর্বে খেলার স্বপ্ন। সেই টিকিট কাটতে হলে আরেকটি জয় দরকার ছিল মেয়েদের। শুক্রবার স্বাগতিক মিয়ানমারকে ১-০ গোলে হারিয়ে গোলাম রাব্বানি ছোটনের শিষ্যরা পূরণ করেছে সেই লক্ষ্য।

অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ডে মিয়ানমারের মান্দালা থিরি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় ম্যাচটি শুরু হয়। ম্যাচে গোল করার সুযোগই পায়নি স্বাগতিক মিয়ানমার। বরং ৬৮ মিনিটে মাথায় কর্ণার থেকে দারুণ এক গোল করে দলকে জয় এনে দেন মনিকা চাকমা।

দ্বিতীয় রাউন্ডের ‘বি’ গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে চীন পিআর, ফিলিপাইন এবং মিয়ানমার। গ্রুপে এর আগের ম্যাচে চীন ৭-০ গোলে ফিলিপাইনকে হারিয়েছে। আর তাতেই দু্ই ম্যাচে দুই জয় নিয়ে চীন এবং বাংলাদেশ মেয়েদের চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত হয়েছে।

আরো পড়ুন ::  ইটভাটায় বন্দী শিশুদের স্বপ্ন

চীন এবং মিয়ানমার অবশ্য গ্রুপের শক্ত দল। দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে এই মিয়ানমারকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেয় চীন। বাংলাদেশ তাদের বিপক্ষে জয় পেল ছোট ব্যবধানে। তবে দুই ম্যাচেই হেরে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপে চূড়ান্ত পর্বে খেলার স্বপ্ন থমকে গেল মিয়ানমার এবং ফিলিপাইনের। দুই ম্যাচে ফিলিপাইন ১৭ গোল খেয়ে বিদায় নিয়েছে। নিয়ম রক্ষার ম্যাচে মিয়ানমার এবং ফিলিপাইন আরও একটি ম্যাচে খেলবে।

আর গ্রুপ পর্বে শীর্ষে থেকে থাইল্যান্ড যাওয়ার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ এবং চীন। ওই ম্যাচে জিততে অবশ্য বাংলাদেশের আরও ঘাম ঝরাতে হবে। কারণ শক্তির বিচারে তারা বেশ এগিয়ে। মিয়ানমার তারা বড় ব্যবধানে হারিয়েছে। আর বাংলাদেশ মেয়েদের হ্যাপা ভোগ করে জিততে হয়েছে। দুই ম্যাচে চীন প্রতিপক্ষের জালে দিয়েছে ১২ গোল। আর বাংলাদেশ দিয়েছে ১১ গোল। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী দল তাই গোল ব্যবধানে পয়েন্ট টেবিলে দুইয়ে আছে।

আরো পড়ুন ::  লামা-চকরিয়া সড়ক ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আটক ৩: অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::