শিরোনাম :
নাইট কোচে ডাকাতি: গ্রেপ্তারকৃত বাস চালক সহ তিনজনকে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন মহেশখালী থেকে ছিনতাই হওয়া মটরসাইকেল উদ্ধার : গ্রেফতার-১ টেকনাফে ১০হাজার ইয়াবা বড়িসহ আটক-১ কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পরিবেশ, পর্যটন ও উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত সেন্টমার্টিনে কোস্টগার্ডের অভিযানে ইয়াবা ও গাজাসহ আটক ২ উৎসবমুখর পরিবেশে উখিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র জমা স্বাস্থ্যবিধি না মানলে প্রয়োজনে কারাদন্ড দেয়া হবে-জেলা প্রশাসক চকরিয়ায় অবৈধ বসতি গুঁড়িয়ে দিয়ে এক একর সংরক্ষিত বনভূমি উদ্ধার কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে কারের ধাক্কায় টমটম চালক নিহত পেকুয়ায় রাতে নির্মিত ৩টি অবৈধ স্থাপনা দিনে উচ্ছেদ
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন

মালেকের দুই মামলা তদন্তের অনুমতি চায় র্যাব

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ ১২:০১ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ ১২:০১ অপরাহ্ণ

[ad_1]

ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর- স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী ড্রাইভার আবদুল মালেকের দুটি মামলা তদন্তের অনুমতি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে র‌্যাব। বুধবার র‌্যাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদনটি করা হয়।

এদিকে র‌্যাবের প্রাথমিক তদন্তে আবদুল মালেক বিদেশে টাকা পাচারের তথ্য পেয়েছে এলিট ফোর্সটি।

র‌্যাবের মুখপাত্র লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী মহাপরিচালকের গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে মালেক ড্রাইভারকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এসময় তার কাছ থেকে একটি পিস্তল, গুলি ও জাল টাকা উদ্ধার করা হয়। যা দেশজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। গ্রেপ্তারের পর তার বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদী হয়ে রাজধানীর তুরাগ থানায় দুটি মামলা করে। একটি অস্ত্র আইনে, অপরটি বিশেষ ক্ষমতা আইনে।

র‌্যাব মুখপাত্র বলেন, আমাদের নিজস্ব গোয়েন্দারা জানতে পেরেছে তিনি (মালেক ড্রাইভার) অবৈধভাবে শতকোটি টাকার মালিক হয়েছেন। তার এই সম্পদের একটি অংশ বিদেশে পাচার করতে পারে বলে তথ্য এসেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব আনুষ্ঠানিকভাবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডিকে মালেকের মানিলন্ডারিং বিষয়ে তথ্য দিয়েছে। পাশাপাশি তুরাগ থানায় হওয়া দুটি মামলা তদন্তের অনুমতি চেয়ে পুলিশ সদরদপ্তরের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে র‌্যাব।

অনুমোদন পেলে র‌্যাব আবদুল মালেক ড্রাইভারকে তাদের হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করবে বলে জানান মুখপাত্র।

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়োগ বদলি পেনশন মানেই মালেক সিন্ডিকেট

তাকে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাবের কাছে যে তথ্য এসেছে তাতে তার আয়ের সঙ্গে পেশার অসামাঞ্জস্যতা নিয়ে অবাক হয়েছে বাহিনীটি। এই আয়ের পেছনে তাকে সহযোগিতাকারীদের বিষয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করেছে দুদক।

এক প্রশ্নের জবাবে আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘তিনি (মালেক) যে পরিমাণ আয় করেছেন তার কতটা অংশ অবৈধ বা বৈধভাবে পাচার করেছেন সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তদন্তের পরে বলা যাবে।’

এছাড়া তার বিরুদ্ধে অন্য অভিযোগ বা আর্থিক অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে দুদক কাজ শুরু করেছে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

সূত্র : ঢাকাটাইমস
এম এন  / ২৩ সেপ্টেম্বর



[ad_2]

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::