তারিখ: সোমবার, ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share:

পেকুয়া প্রতিনিধি ::
কক্সবাজারের পেকুয়ায় আইন লঙ্ঘন করে মাতামুহুরী নদীতে শ্যালো মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করছে একটি অসাধু চক্র। এতে ভাঙ্গনের হুমকিতে পড়েছে নদীর দুই তীরের বসতি ও বাঘগুজারা সেতু।

বুধবার(৫ডিসেম্বর) দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, আ লিক মহাসড়কের পেকুয়া-চকরিয়া সীমানায় বাঘগুজারা ব্রিজের পূর্বপাশে মাতামুহুরি নদীর মাঝখানে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এসব বালু লম্বা পাইপের সাহায্যে নিয়ে ফেলা হচ্ছে মেহেরনামা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে। পরে এসব বালু গাড়ীতে করে সরবরাহ করা হচ্ছে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে।

বাঘগুজারা বাজারের বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, মাতামুহুরি নদী থেকে বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত ড্রেজার মেশিনের বিকট শব্দে পার্শ্ববর্তী এক কিলোমিটার এলাকায় মানুষের কান ঝালাপালা হয়ে যাচ্ছে। ধারাবাহিক শব্দ দূষণে আশেপাশে তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, মসজিদের মুসুল্লি সহ বাজারের ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যে মেহেরনামা উচ্চ বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক অবৈধভাবে এসব বালু উত্তোলন করছেন। উত্তোলিত এসব বালু চড়া দামে বিক্রি করে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন।

এব্যাপারে মেহেরনামা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শামসুদ্দৌহা বলেন, বিদ্যালয় সংস্কার কাজের জন্য পেকুয়া উপজেলা প্রশাসনের
নিয়ে নদী থেকে এসব বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। সংস্কারকাজের প্রয়োজন ছাড়া একটি বালুকণাও নদী থেকে উত্তোলন করা হবে না।

পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবউল করিম বলেন, মাতামুহুরি নদী থেকে বালু উত্তোলন করতে কাউকে অনুমতি দেয়নি উপজেলা প্রশাসন। এব্যাপারে খোঁজ নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::