শিরোনাম :
টেকনাফে পুলিশের অভিযানে মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার চকরিয়ায় বসতঘরে মিলল ভূয়া পাসপোর্ট, এনআইডি ও সীলমোহর, আটক-১ জেলে পরিবারে চলছে নিরব দুর্ভিক্ষ কুতুবদিয়া থানার নতুন ওসি হিসেবে যোগদান করলেন ওমর হায়দার কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় ৩ পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৭ জনের নামে মামলা সৌদিতে কারগাড়ির চাপায় চকরিয়ার যুবক নিহত, বাড়িতে শোকের মাতম চকরিয়ায় যাত্রীবেশী দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে টমটম চালক খুন জেলা আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির অবশান, শেষে চকরিয়ায় এমপি জাফর ও লিটুকে গণসংবর্ধনা চকরিয়ায় বনের উপর নির্ভশীল ভিসিএফ সদস্যদের মধ্যে ক্ষুদ্র মূলধনের ২২ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৬:৫০ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

মহেশখালীতে ২টি স্লুইসগেট নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ১৮, ২০১৮ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ১৮, ২০১৮ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

এ.এম হোবাইব সজীব, মহেশখালী ::
মহেশখালী উপজেলার পূর্বপাশে বেড়িবাঁধ এলাকায় শাপলাপুর ইউনিয়নে ২টি স্লুইসগেট নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম–দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। ফলে উপকূলবাসীর জন্য টেকসই স্লুইসগেট নির্মাণে সরকারের এই বৃহৎ উদ্যোগ ভেস্তে যাওয়ার আশংকা করছেন স্থানীয় বাসিন্দা ও জনপ্রতিনিধিরা।
জানা গেছে, ২০১৮–১৯ অর্থ বছরে কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবোর) ৪ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে উপজেলার শাপলাপুর ইউনিয়নের গুচ্ছ গ্রাম সংলগ্ন দিনেশপুর এলাকায় ১টি ও শাপলাপুর বাজারের পূর্বপার্শ্বে ১ টি, মোট ২ টি স্লুইসগেট নির্মাণের দায়িত্ব পায় কক্সবাজারের এস.এস ইনঞ্জিনিয়ারিং নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মালিক গিয়াস উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি নিজে কাজের তদারকি না করে সাব ঠিকাদার ও সাইড ম্যানেজার দিয়ে স্লুইসগেট ২টি নির্মাণ করায় কাজের লাগামহীন অনিয়ম শুরু হয়েছে।
অভিযোগ উঠেছে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের তদারকির অভাবে ব্যাপক অনিয়ম–দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে সিডিউল বহির্ভূত স্লুইসগেট নির্মাণে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের মাধ্যমে সরকারি বিপুল অর্থ লোপাটের পাঁয়তারায় মেতেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।
সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, স্লুইস গেইটে উচ্চতা কমানো, সিলেটি পাথর, বালি ব্যবহারের নিয়ম থাকলে ও স্থানীয় লবণাক্ত বালি ব্যবহার এবং পাথর ব্যবহার করা হচ্ছে। নিন্মমানের সিমেন্ট ব্যবহার করা হচ্ছে। সিসি ঢালাইতে অনিয়ম লক্ষ্য করা গেছে।
স্থানীয় লোকজন বলছেন, এটি তো পুকুর চুরিও নয়, সাগর চুরি বলতে হবে। নিম্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ হতে যাওয়ায় স্লুইসগেট ২টি যে কোন সময় ধ্বসে পড়ার আশংকা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।
কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত এস.এস ইনঞ্জিনিয়ারিং নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাইড ম্যানেজার সেলিম বলেন, কোন অনিয়ম হচ্ছেনা। তিনি এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সংশ্লিষ্ট উপ–সহকারী প্রকৌশলী পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর ঢালাই করা হচ্ছে। উপ–সহকারী প্রকৌশলী/ শাখা কর্মকর্তা মহেশখালী নারায়ন চন্দ দত্ত দৈনিক পূর্বকাণকে বলেন, আমার জানামতে স্লুইসগেট ২টি নির্মাণে সিডিউল মোতাবেক কাজ হচ্ছে আর অনিয়ম হচ্ছেনা। তবে কোথাও কাজের গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিলে তা সর্ম্পূণ করে নিতে চেষ্টা করি শতভাগ।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::

সর্বশেষ