শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

মহেশখালীতে ১৬ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক ২

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ১ মার্চ, ২০২২

কক্সবাজারের মহেশখালীতে ১৬,০০০ পিস ইয়াবাসহ র‍্যাব-১৫ এর হাতে আটক হয়েছে দুই ইয়াবা কারবারি।

র‍্যাব ১৫ সূত্রে জানা যায়, গেলো ২৪ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) র‍্যাব-১৫ এর একটি আভিযানিক দল মহেশখালী কুতুবজোম ইউনিয়নের সোনাদিয়া দ্বীপের সোনাদিয়া পূর্ব পাড়াস্থ ফায়ার ক্যাম্প রিসোর্ট এলাকায় ইয়াবা কারবারিদের উপস্থিতি রয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায়।

এসময় র‍্যাবের উপস্থিতি বুঝতে পেরে ইয়াবা কারবারিরা পালানোর চেষ্টা করলে র‍্যাব-১৫ সদস্য’রা তাদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সোনাদিয়ার পূর্ব পাড়ার মৃত হুমায়ুন কবিরের পুত্র ইমাম উদ্দিন (৩৭) এবং কক্সবাজারের ঈদগাঁও জালালাবাদ এলাকার বকতার আহম্মেদের পুত্র আরাফাত হোসাইন (২২)।

এসময় তাদের কাছে ১৬,০০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে র‍্যাব। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা দীর্ঘদিন যাবৎ পরস্পর যোগসাজসে টেকনাফ সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ক্রয় করে কক্সবাজার ও দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করে আসছে বলে স্বীকার করেছে বলে র‍্যাব এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করা হয়েছে বলে জানায় র‍্যাব।
তবে স্থানীয়দের দাবী সোনাদিয়ার বর্তমান ইউপি সদস্য একরাম মিয়ার নেতৃত্বে চলছে ইয়াবা ও জলদস্যুদের নিয়ন্ত্রন তার পিছনে রয়েছে রাজনৈতিক নেতা ও জনপ্রতিনিধিরা। তারা সোনাদিয়া দ্বীপকে মাদকের স্বর্গরাজ্য বানাতে এই খারাপ মানুষকে জনপ্রতিনিধি করেছে।


আরো খবর: