শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

মহেশখালীতে যুবক হত্যার ঘটনায় মামলা

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

মহেশখালীতে মো. ফেরদৌস (২৫) নামের যুবক নিহতের ঘটনায় এজাহারনামীয় ১৯ জন ও অজ্ঞাত ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে নিহতের চাচা নুরুল হক বাদী হয়ে থানায় মামলাটি দায়ের করেন। যার নং ০৭/২০২২।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল হাই সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার পরিদর্শক (এসআই) বাপ্পী সরকার জানান, দায়েরকৃত মামলায় হত্যায় ঘটনায় মুল অভিযুক্ত মো. জাবেদকে ১ নম্বর ও ঘটনার ইন্ধনদাতা স্থানীয় ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টুকে ৪ নম্বর আসামি করা হয়েছে।

এর আগে রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে বড় মহেশখালী ইউনিয়নের ফকিরা ঘোনায় ধানখেতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মো. ফেরদৌসের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর নিহতের স্বজনেরা দাবি করে বাজার থেকে ফেরার পথে তাকে তুলে নিয়ে হত্যা করেছে মো. জাবেদের নেতৃত্বে ১০/১৫ জন দুর্বৃত্ত। তার মৃত্যুর ঘটনায় ইন্ধনদাতা হিসেবে স্থানীয় ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান মিন্টুকে অভিযুক্ত করে পরিবার। অবশ্য, পুলিশ বলছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের গোলাগুলিতে নিহত হন মো. ফেরদৌস। তিনি ওই এলাকার মৃত মো. নেছারের ছেলে।

ঘটনার দিন রাতে জড়িত সন্দেহে দু’জনকে আটক করে পুলিশ। তাদেরকে মামলায় আসামি করে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তবে ওইদিনের এ ঘটনায় নিখোঁজ মো. ছোয়ানের খোঁজ মেলেনি।

এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল হাই বলেন, নিহতের চাচা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। দু’জনকে আটক করেছি। বাকীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


আরো খবর: