তারিখ: মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:

মহেশখালীতে রাতের আধারে পাহাড় কেড়ে সাবাড় করা হচ্ছে, গত বেশ কয়েকদিন ধরে একটি সঙ্গবদ্ধ চক্র আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এ কাজ করে আসছিল। সর্বশেষ গতকাল গভীর রাতে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে পাহাড় কাটার লোকজনকে হাতেনাতে ধরে দু’লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জামিরুল ইসলাম জানান -সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সূত্রে জানাযায় কালারমার ছড়ার উত্তর নলবিলা এলাকায় গভীর রাতে পাহাড় কাটা হচ্ছে। সূত্রের এমন খবরে নিশ্চিত হয়ে রাত দুইটার দিকে ওই এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়। অভিযান দল ঘটনাস্থলে গিয়ে পাহাড় কাটার বিষয়টির সত্যতা পান। এখানে পাহাড় কাটা অবস্থায় লোকজনকে হাতেনাতে পাওয়া যায়। পরে পাহাড় কাটার কাজ তদারকির কাজে নিয়োজিত জনৈক ফারহান মোহাম্মদ দানিয়েলকে নগদ দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা ঘোষণার পর তাৎক্ষনিক ভাবে জারিমানার টাকা আদায় করে রাষ্ট্রিয় কোষাগারে জমা করা হয় বলে জানান ইউএনও জামিরুল ইসলাম। তিনি জানান -পাহাড় কাটা একটি জগন্য পরিবেশ বিরোধী কাজ। এটি আইনত অপরাধ। কেউ আইনকে অমান্য করে এমন কাজ করতে চাইলে তাকে অবশ্যই আইনের মুখোমুখি হতে হবে।

জানাগেছে জরিমানা করা এ ফারহান চকরিয়ার বাসিন্দা। স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্রের হয়ে তিনি ড্রাজার দিয়ে পাহাড় কাটার প্রযুক্তিগত কাজটি তদারকি করে আসছিল। এর চক্রটি গত বেশ কয়েকদিন ধরে নির্বিচারে পাহাড় নিধন করে মাটি বিক্রি করে আসছিল বলে সূত্রে প্রকাশ। চক্রটির পেছনে দুর্নীতিবাজ আরও একটি বিশেষ চক্র জড়িত বলে জানাগেছে।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::