রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন

মরার পর ভাতা চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দিন! – কক্সবাজার সদরে ৭৫ বছরের বৃদ্ধার অছিয়ত

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ১৯, ২০১৯ ৮:৪৫ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ১৯, ২০১৯ ৮:৪৫ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও ::

কক্সবাজার সদরের পোকখালী ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ নাইক্যংদিয়া গ্রামের বৃদ্ধা ফরমোজা বেগম। বয়স প্রায় ৭৬। স্বামী মৌলভী গোরা মিয়া মারা গেছে ২৮ বছর বছর আগে। দেখভালের তেমন কেউ বাড়িতে নেই। কোন রকম জীবন চলছে। কিন্তু এখনো কপালে জুটেনি বয়স্কভাতা। পাননা বিধবা ভাতাও। আর কত বছর হলে ভাতা মিলবে? প্রশ্ন ফরমোজা বেগমের।

সরকারের ঘোষণা প্রদত্ত বয়স্ক অথবা বিধবাভাতার জন্য দীর্ঘ ৮/৯ বচ্ছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বারদের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরেও বয়স্কভাতা অথবা বিধবাভাতা কপালে জুটেনি জীবনের শেষ প্রান্তে আসা এই বৃদ্ধার। এক আলাপচারিতায় ফরমোজার করুণ বর্ণনাগুলো ওঠে আসে।

পচাত্তরোর্ধ ফরমোজা বেগম জানান, এই বয়স্ক অথবা বিধবাভাতার জন্য চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের ধারে ধারে গিয়ে তার চলারশক্তিও শেষ হয়ে গিয়েছে। মেম্বারদের কথায় অনেকবার ছবি ও আইডি কার্ড দিয়েছিল। সাথে ১২শ (এক হাজার দুইশত) টাকাও দিয়েছি। পরবর্তীতে বার বার যাওয়ার ফলে বিরক্তি প্রকাশ করে টাকাগুলো ফেরৎ দিয়ে বলে এত কম টাকা দিয়ে কার্ড পাওয়া যায়না ! বয়স্ক অথবা বিধবাভাতার কার্ড নিতে চাইলে আগেভাগে ছয়-সাত হাজার টাকা লাগবে।

-স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ বঞ্চিত এই বৃদ্ধার। টাকার কথা শুনে বৃদ্ধা ফরমোজা চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের তেমন আর বিরক্ত করেনা। তবে আগেরমত যেতে না পারলেও মাঝেমধ্যে মহিলা ও পুরুষ মেম্বারদের কাছে যায়। তারাও একটা আশার বাণী ‘আগামীবার কার্ড আসলে দেব’ শুনিয়ে বিদায় দেয়।

এ ব্যাপারে মহিলা ও পুরুষ এমইউপিদ্বয়কে মোবাইল করলে দুইজনেই একই সুরে একই বাণী শুনিয়ে দিল ‘আগামীবার বয়স্ক অথবা বিধবাভাতার কার্ড আসলে অবশ্যই বৃদ্ধা ফরমোজাকে দেওয়া হবে।

পোকখালী ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমেদের কাছে এ বিষয়ে জানতে ফোন করে পাওয়া যায়নি। শেষ পর্যন্ত এই বৃদ্ধার অছিয়তনামা- আমি মারা গেলে, যদি আমার বিধবা ও বয়স্কভাতা আসে তা যেন চেয়ারম্যান-মেম্বারদের বন্টন করে দেয়া হয়।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::