শিরোনাম :
রোহিঙ্গা মহিলারা প্রতিভা বিকাশের সুযোগ পাচ্ছে সড়ক-মহাসড়কে সকল ধরনের অবৈধ চাঁদাবাজী রুখতে হবে- শাহজাহান খাঁন এমপি টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপ খেলার মাঠ অবৈধ দখল মুক্ত করল সহকারী কমিশনার কক্সবাজার জেলায় পাঁচ বছরে মানুষের আক্রমণে ২১টি হাতির মৃত্যূ কক্সবাজারে জলবায়ু উদ্বাস্তু ও বিমানবন্দর সম্প্রসারণে আরও একটি আশ্রয়ণ’ প্রকল্প : ভূমিহীন ৩,৮০৮ পরিবার পাবে ১১৯টি ভবন চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীর তীরে পলিথিন মোড়ানো শিশুর মরদেহ উদ্ধার ধরে নিয়ে যাওয়া ৯ বাংলাদেশী জেলেকে বিজিবি’র কাছে হস্তান্তর করল বিজিপি কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ৩ সদস্য নিয়োগ সিরাজুল মোস্তফা কেন্দ্রে; জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরিদ বাঁধ মেরামতে স্বস্তি পাচ্ছে কুতুবদিয়ার মানুষ
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:০৩ পূর্বাহ্ন

ভোটার তালিকাতেও নেই তারেকের নাম!

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ২৫, ২০১৮ ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ২৫, ২০১৮ ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজার পোস্ট ডটকম ::
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাসপোর্ট নিয়ে আলোচনার মধ্যে অনুসন্ধান চালিয়ে তার বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সন্ধান মেলেনি। ছবিসহ ভোটার তালিকায়ও তার নাম নেই।

বুধবার (২৫ এপ্রিল) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের পরিচালক জনসংযোগ কর্মকর্তা এস এম আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ২০০৭-০৮ সালে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়ন করা হয়।

তিনি বলেন, যখন সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে জাতীয় পরিচয়পত্র হয়, তখন তারেক রহমান এনআইডিতে তালিকাভুক্ত হননি। কারাবন্দি থাকার কারণে ছবিসহ ভোটার তালিকায়ও তার নাম উঠেনি। এরপর ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বরে মুক্তি পাওয়ার পর লন্ডন চলে যান। কিন্তু ভোটার হননি। তবে বাংলাদেশি হিসেবে যে কোনো সময় ভোটার হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

এদিকে তারেক রহমান ভোটার না হলেও তার মা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ২০০৮ সালের ২৯ নভেম্বর ক্যান্টনমেন্টের ঠিকানায় ভোটার হন।

২০০৮ সালে ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়নের সময় তারেকের মা খালেদা জিয়াকে ভোটার তালিকাভুক্ত করার কাজে যুক্ত ছিলেন ঢাকা জেলার জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়সল কাদের।

তিনি বলেন, তখন ম্যাডাম জিয়াকে ভোটার করতে আমরা সাব জেলে গিয়েছিলাম। উনি রাজি হননি। পরে সেনানিবাসের মইনুল রোডের বাসায় ফিরলে ওই ঠিকানায় তাকে আমরা ভোটার করি।

ওই বাড়ির ঠিকানায় কয়েকজন গৃহকর্মীও সে সময় ভোটার হয়েছিলন জানিয়ে ফয়সল কাদের বলেন, আমার জানা মতে, ওই সময় তারেক রহমান ওই ঠিকানায় ভোটার হননি।

২০০৮ সালে সপরিবারে লন্ডন যাওয়ার পর আর ফেরেননি তারেক। সেখানে থাকা অবস্থায় বাংলাদেশের আদালতে দুটি মামলায় তার কারাদণ্ডের রায় হয়। আবার তিনি বিএনপি জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যানও হন। মা বন্দি হওয়ার পর এখন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করছেন।-ভোরের পাতা

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::