শিরোনাম :
উৎসবমুখর পরিবেশে উখিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র জমা স্বাস্থ্যবিধি না মানলে প্রয়োজনে কারাদন্ড দেয়া হবে-জেলা প্রশাসক চকরিয়ায় অবৈধ বসতি গুঁড়িয়ে দিয়ে এক একর সংরক্ষিত বনভূমি উদ্ধার কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে কারের ধাক্কায় টমটম চালক নিহত পেকুয়ায় রাতে নির্মিত ৩টি অবৈধ স্থাপনা দিনে উচ্ছেদ লকডাউন আর না, সচেতন হোন-সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দিন পেকুয়ায় মাস্ক ব্যবহার না করায় ৯ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা কভিড-১৯ প্রণোদনা নিয়ে কক্সবাজারে ব্যাংক কর্মকর্তাদের সাথে সংলাপ শিশু ধর্ষণের দায়ে কুতুবদিয়ার এক ব্যক্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদন্ড দাবি আদায়ে কর্মবিরতিতে কক্সবাজারের স্বাস্থ্য সহকারীরা
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:০৩ অপরাহ্ন

বিড়ালের খোঁজে মাইকিং, থানায় জিডি!

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: অক্টোবর ২৮, ২০২০ ১:৫৭ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: অক্টোবর ২৮, ২০২০ ১:৫৭ অপরাহ্ণ

[ad_1]

বিড়ালের খোঁজে মাইকিং, থানায় জিডি!

কুষ্টিয়া, ২৯ অক্টোবর- সকালে আদুরে বিড়ালটি হারিয়ে যায় কণ্ঠশিল্পী সিঁথি সাহার। আশপাশের কোথাও না পেয়ে পোষা প্রাণীটির খোঁজে মাইকিং করান তিনি। থানায় করেন সাধারণ ডায়েরিও (জিডি)। শেষমেশ বিড়ালটি খুঁজে পেয়েছেন তিনি। সন্ধ্যায় বাড়ির দরজার সামনেই প্রাণীটিকে পেয়ে আনন্দে ঝলমল করে ওঠে তাঁর মুখ।

বুধবার বিড়াল নিয়ে এ কাণ্ড ঘটেছে কুষ্টিয়া শহরে। এ শহরের থানাপাড়ায় সিঁথি সাহার বাসা।

সন্ধ্যায় সিঁথি বলেন, ‘কেউ হয়তো বিড়ালটি রেখে দিয়েছিল। পরে পুলিশের ত্বরিত পদক্ষেপের কারণে ফিরিয়ে দিয়েছে। এ জন্য পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম তানভীর আরাফাতকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তিনি দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ায় শখের বিড়ালটি ফেরত পেলাম। সব কৃতিত্ব পুলিশের।’

আরও পড়ুন: বিষাক্ত মদপানে ৩ যুবকের মৃত্যু

সিঁথি সাহা জানান, প্রায় এক বছর ধরে শখের বসে বিড়ালটি পুষছেন তিনি। আজ বেলা ১১টার দিকে তিনি সেটি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। ম্যাঁওকে (বিড়াল) না পেয়ে আশপাশের বাড়িতে ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেন। কান্নাও করেন। বিড়ালের খোঁজে এলাকায় মাইকিংও করেন। এরপর বেলা দুইটার দিকে কুষ্টিয়া মডেল থানায় গিয়ে জিডি করেন। এরপর উপপরিদর্শক (এসআই) সুমন কাদেরী এলাকায় গিয়ে বিড়ালটির বিষয়ে খোঁজখবর নিতে থাকেন। একপর্যায়ে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে তিনি দেখতে পান, বাড়ির দরজার সামনে বিড়ালটি দাঁড়িয়ে আছে। এতে মনটা ভরে ওঠে তাঁর।

জানতে চাইলে এসপি এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, কুষ্টিয়া পুলিশ যেকোনো প্রয়োজনে জনগণের সেবায় সব সময় কাজ করছে এবং করে যাবে।

সিঁথি রবীন্দ্রসংগীত, লোকসংগীত ও চলচ্চিত্রের গান করেন। তাঁর চারটি গানের অ্যালবাম বেরিয়েছে।

সূত্র : প্রথম আলো
এম এন / ২৯ অক্টোবর

[ad_2]

বিড়ালের খোঁজে মাইকিং, থানায় জিডি!

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: ১:৫৭ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: অক্টোবর ২৮, ২০২০ ১:৫৭ অপরাহ্ণ

[ad_1]

বিড়ালের খোঁজে মাইকিং, থানায় জিডি!

কুষ্টিয়া, ২৯ অক্টোবর- সকালে আদুরে বিড়ালটি হারিয়ে যায় কণ্ঠশিল্পী সিঁথি সাহার। আশপাশের কোথাও না পেয়ে পোষা প্রাণীটির খোঁজে মাইকিং করান তিনি। থানায় করেন সাধারণ ডায়েরিও (জিডি)। শেষমেশ বিড়ালটি খুঁজে পেয়েছেন তিনি। সন্ধ্যায় বাড়ির দরজার সামনেই প্রাণীটিকে পেয়ে আনন্দে ঝলমল করে ওঠে তাঁর মুখ।

বুধবার বিড়াল নিয়ে এ কাণ্ড ঘটেছে কুষ্টিয়া শহরে। এ শহরের থানাপাড়ায় সিঁথি সাহার বাসা।

সন্ধ্যায় সিঁথি বলেন, ‘কেউ হয়তো বিড়ালটি রেখে দিয়েছিল। পরে পুলিশের ত্বরিত পদক্ষেপের কারণে ফিরিয়ে দিয়েছে। এ জন্য পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম তানভীর আরাফাতকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তিনি দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ায় শখের বিড়ালটি ফেরত পেলাম। সব কৃতিত্ব পুলিশের।’

আরও পড়ুন: বিষাক্ত মদপানে ৩ যুবকের মৃত্যু

সিঁথি সাহা জানান, প্রায় এক বছর ধরে শখের বসে বিড়ালটি পুষছেন তিনি। আজ বেলা ১১টার দিকে তিনি সেটি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। ম্যাঁওকে (বিড়াল) না পেয়ে আশপাশের বাড়িতে ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেন। কান্নাও করেন। বিড়ালের খোঁজে এলাকায় মাইকিংও করেন। এরপর বেলা দুইটার দিকে কুষ্টিয়া মডেল থানায় গিয়ে জিডি করেন। এরপর উপপরিদর্শক (এসআই) সুমন কাদেরী এলাকায় গিয়ে বিড়ালটির বিষয়ে খোঁজখবর নিতে থাকেন। একপর্যায়ে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে তিনি দেখতে পান, বাড়ির দরজার সামনে বিড়ালটি দাঁড়িয়ে আছে। এতে মনটা ভরে ওঠে তাঁর।

জানতে চাইলে এসপি এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, কুষ্টিয়া পুলিশ যেকোনো প্রয়োজনে জনগণের সেবায় সব সময় কাজ করছে এবং করে যাবে।

সিঁথি রবীন্দ্রসংগীত, লোকসংগীত ও চলচ্চিত্রের গান করেন। তাঁর চারটি গানের অ্যালবাম বেরিয়েছে।

সূত্র : প্রথম আলো
এম এন / ২৯ অক্টোবর

[ad_2]

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::