শিরোনাম ::
সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৯ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

বান্দরবানের সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ ভাই-বোনের লাশ উদ্ধার

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১

বান্দরবানের সাঙ্গু নদীতে থেকে আহনাফ আকিব (২২) ও তার বোন আদনীনের (১৮) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর থেকে তারা নিখোঁজ ছিলেন।
শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় আদনীন ও দুপুরে আকিবের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। উদ্ধার হওয়া আকিব আদনান ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও তার বোন আদনীন নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্রী। তারা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ফতুল্লার ইচদারগ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলামের সন্তান। সন্তানদের নিখোঁজের খবরে ফতুল্লা থেকে ছুটে আসেন মা সাইদা শিউলী ও মামা শামীম রানা।

পুলিশ জানান, বান্দরবা‌ন থেকে ১০ পর্যটক নৌকা‌ ক‌রে সাঙ্গু নদী পথে বেতছড়ায় বেড়া‌তে আসেন। এ সময় বেতছড়ার বাধরা ঝর্ণার পাশে নদী‌তে গোসল কর‌তে নামলে তিনজন নদীতে তলিয়ে যায়। এর মধ্যে শুক্রবার মারিয়া নামে এক পর্যটককে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদের মধ্যে আকিব ও আদনীন নিখোঁজ ছিলেন।

মামা শামীম রানা জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে ১০ জনের একটি দল গত ২২ ডিসেম্বর সকালে বান্দরবান ভ্রমণে আসেন। তারা বান্দরবানের বিভিন্ন পর্যটন স্পটে ঘুরে দেখেন। শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) বিকেলে তারা নৌকা নিয়ে রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়নের তারাছা ঝর্ণায় পৌঁছায়। ঝর্ণা দেখার পরে তারা সবাই সাঙ্গু নদীতে গোসল করতে নামে। নদীতে মারিয়া তলিয়ে গেলে তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে আহনাফ ও আদনীন। পরে তারাও তলিয়ে যায়। নিহতদের লাশ নারায়ণগঞ্জে নেওয়া হবে।


আরো খবর: