তারিখ: শুক্রবার, ২৬শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং, ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

Share:

এস,এম,জুয়েল আলীকদম ::

‘মানুষ মানুষর জন্য’ এ মহতি শ্লাগানকে বাস্তবে পরিণত করলেন আলীকদম উপজলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ের অফিস সুপার (ওএস) ছমং মার্মা। সম্প্রতি বসাবি ভাতা, উৎসব ভাতা ও নিজ বতনর পুরাটায় স্থানীয় দুঃখি মানুষর মাঝ বিলিয় দিয়েছেন তিনি।

ওএস ছমং মার্মা জানান, আমি বুদ্ধ ধর্মর অহিংসা নীতিক মনে ধরে চলি। আমার কাছে পাহাড়ি আর বাঙ্গালী পার্থক্য নাই। আসুন বাংলা নববর্ষ-বসাবিক ঘিরে পাহাড়ি বসবাসরত সকল সম্প্রদায় উৎসবে মেতে উঠবে। কিন্তু দারিদ্রতার কারণ কিছু পরিবার নববর্ষর উৎসব করতে পারেন না। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি বাংলা নববর্ষকে ঘিরে যসব দরিদ্র মানুষ উৎসব অনুষ্ঠানরে খরচের জন্য কষ্ট দিনাতিপাত করছেন তাদর পাশে দাঁড়াবা। এ লক্ষ্য আমি আমার সরকারিভাব প্রাপ্ত বসাবি ভাতা ও উৎসব ভাতার সবটুকুই আমার কর্ম¯ল আলীকদম উপজলার ৩০টি দরিদ্র পরিবারর মাঝে বিলি করে দিয়েছি। এছাড়াও তিনি বদ্ধ কয়াং এর ভিক্ষুকদের মাঝেও উৎসব ভাতার অর্থ দান করন। তিনি বলন, বিত্তবান সকল দরিদ্র জনগাষ্ঠীর সাহায্য এগিয়ে আসলে মহামতি বুদ্ধর নীতি অনুসার সমাজে ফিরে আসবে।

সাহায্য পাওয়া হাসিনা বেগম জানান, আমার স্বামী মারা গেছে। বর্তমান ৪ জন নাবালক ছেলে মেয়ে নিয়ে আমি কষ্ট দিনাতিপাত করছি। ইউএনও অফিসের ওএস ছমং মার্মার যৎসামান্য আর্থিক সাহায্য আমার পরিবারের উপকার এসেছে। সবাউ তঞ্চঙ্গ্যা জানান, আমি এ সাহায্য দিয়ে নববর্ষের জন্য নতুন জামা কিনছি।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::