তারিখ: মঙ্গলবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া ::
পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নে এবার রাতের আধাঁরে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা রমিজউদ্দিন আহমদের জমি দখলে নিয়েছে দুবৃর্ত্তরা। রাতের মধ্যে তারা দখলে নেয়া ওই জমিতে চারদিকে ঘিরা দিয়ে ফেলেছে। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্যের ইন্ধনে প্রভাবশালী মহল রাতের আধাঁরে প্রায় চার শতক ফসলী জমি দখলে নিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে মামলা রেকর্ড হয়েছে। এরপরও থামেনি মুক্তিযোদ্ধার জমি দখলের মহোৎসব। ইউনিয়নের পূর্ব সোনাইছড়ি রমিজপাড়া গ্রামে ঘটেছে জমি দখলের এ ঘটনা। অপরদিকে চেয়ারম্যানের জমি সংলগ্ন এলাকায় হাফেজ জাফর আহমদ নামের অপর একজনের জমিও অভিযুক্তরা দখলে নিয়ে চারা রোপন করেছে।
স্থানীয় লোকজন জানান, দখলে নেয়া জমির মালিক রমিজ উদ্দিন আহমদ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। ইউনিয়নের সোনাইছড়ি ঢালার মুখ সড়কের দক্ষিন পাশে তাঁর চার শতক জায়গা জমি রয়েছে। পাহাড়ী এলাকাটি মুক্তিযোদ্ধা রমিজপাড়া নামে নামকরন করা হয়েছে।
রমিজ উদ্দিন আহমদের অভিযোগ, দুর্লোভের বশবর্তী হয়ে ইউনিয়নের রমিজপাড়ার গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ ফিরোজ নামের এক প্রভাবশালী ব্যক্তি ভাড়াটে লোকজন জড়ো করে তাঁর (রমিজ চেয়ারম্যানের) ৪ শতক জমি দখলে নিয়েছে। বর্তমানে জমিতে ফসল রয়েছে। দখলের পর ওই জমিতে ঘিরা বেড়া নির্মাণ করেছে।
অভিযোগ উঠেছে, দখলের ঘটনায় অভিযুক্ত ফিরোজের স্ত্রী আসমাউল হুসনা স্থানীয় টইটং ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নবীর হোসাইন প্রকাশ নবু মেম্বারের ভাতিজি। সাবেক চেয়ারম্যানের জমি দখলের এ ঘটনায় নবু মেম্বারের ইন্ধন রয়েছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, নবু মেম্বার এলাকায় একাধিক অপকর্মের হোতা। একাধিক মামলার ফেরারী আসামি। পাহাড়ে জুম এলাকায় অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করে। তিনি অনেকদিন থেকে জনবিচ্ছিন্ন।
চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের কাছে সাবেক চেয়ারম্যান রমিজ উদ্দিন আহমদ বলেছেন, উল্লেখিত জায়গার বিষয়ে টইটং ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে মামলা রেকর্ড হয়েছে। ঘটনার দিন বর্তমান চেয়ারম্যান দখল তৎপরতা প্রতিহত করতে ঘটনাস্থলে গ্রাম পুলিশ পাঠায়। ওইসময় গ্রাম পুলিশ সদস্যরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত জবরদখল থেকে বিরত থাকতে অভিযুক্ত ফিরোজকে নির্দেশ দেন।
মুক্তিযোদ্ধা রমিজ উদ্দিন আহমদ জানান, আমি মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম। দেশকে শত্রুমুক্ত করেছি। অথচ প্রতিদান হিসেবে জমি দখলের মাধ্যমে এখন আমার বিরুদ্ধে অন্যায় অভিসার করা হচ্ছে। কিন্তু আজ দুর্লোভের বশবর্তী হয়ে কতিপয় মহল আমার জমি দখলে নিচ্ছে। আমি এ ঘটনায় প্রশাসনের কাছে জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
টইটং ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, অভিযুক্তপক্ষের লোকজন বাড়ির লাগোয়া কিছু জমি দখলে নিয়েছে। আমি বলে দিয়েছি ঘিরা বেড়া অপসারন করতে। #

আপনার মতামত প্রদান করুন ::