শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে কর্মশালা অনুষ্ঠিত সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:০৫ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

পেকুয়ায় র‍্যাবের অভিযানে অস্ত্রসহ ৩ জন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট: বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

কক্সবাজারের পেকুয়ায় শীর্ষ সন্ত্রাসী আব্দুল হামিদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র তৈরির সরাঞ্জমসহ ৩ জনকে আটক করে র‍্যাব । বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলা টৈটং ইউপির জুমপাড়ায় ওই আস্তানা থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন র‍্যাব-৭ এর অধিনায়ক এম.এ. ইউসুফ। এসময় তাদের কাছ থেকে দেশীয় তৈরি ৮টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আটকৃকতরা হলেন, টৈটং ইউপির নাপিতাখালি এলাকার সাবেক মো. ছিদ্দিকের ছেলে নুরুল কবির, একই ইউপির জুমপাড়া এলাকার নুরুল কাদেরের ছেলে আব্দুল গফুর ও মো.মূসার ছেলে বাদশা। তবে এই অস্ত্র তৈরির মূল কারিগর আব্দুল হামিদ এসময় পালিয়ে যায়।

র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন আগে উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু কবির বাহিনীর প্রধান কবিরসহ ১৫ জনকে আটক করে র‍্যাব। এই কবির তথ্য দেয় পেকুয়ার টৈটং ইউপির জুমপাড়ায় আব্দুল হামিদের অস্ত্র তৈরির কারখানা থেকে সে অস্ত্র সংগ্রহ করতো। তার দেওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে টৈটং ইউপির জুম পাড়ার বেশ কয়েকটি পাহাড়ে ৪৮ ঘন্টা অভিযান পরিচালনা করে অস্ত্র তৈরির সরাঞ্জমসহ ৩ জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে র‍্যাব। তবে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে গেছে এই অস্ত্র তৈরির মূলহোতা আব্দুল হামিদ।

র‍্যাব-৭ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল এম.এ. ইউসুফ জানান, পেকুয়াতে অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়ে গত ৪৮ ঘন্টা ধরে বেশ কয়েকটি পাহাড়ে অভিযান পরিচালনা করে ৮ টি দেশীয় তৈরি অস্ত্রসহ ৩ জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের ধারণা তারা এই অস্ত্র গুলো দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকে। তবে মূলহোতা আব্দুল হামিদ এখনো ধরা পড়েনি। আমাদের ধারণা সে এখনো পাহাড়ের কোথাও লুকিয়ে আছে। আমরা খুব শীগ্রই তাকেও আটক করতে সক্ষম হবো।


আরো খবর: