রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

পেকুয়ায় ছাত্রলীগ নেতার মামলায় জেলে গেলেন চেয়ারম্যান

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: জুন ৭, ২০১৮ ১১:৪০ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: জুন ৭, ২০১৮ ১১:৪০ পূর্বাহ্ণ

নাজিম উদ্দিন, পেকুয়া ::
পেকুয়ায় কারাগারে গেলেন শিলখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হোসাইন। উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক নাছির উদ্দিন বাদশার দায়েরকৃত চাঁদাবাজি মামলায় তাকে কারাগারে যেতে হল। ৭ জুন চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক তার জামিন না মঞ্জুর করে। এ সময় তাকে জেলে পৌছায়। ওই দিন জিআর-১৫/১৬ মামলার শুনানী চলছিল। জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক তার জামিন না মঞ্জুর করে। সুত্র জানায়, ২০১৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর পেকুয়া থানায় একটি মামলা রেকর্ড হয়। ওই মামলায় শিলখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হোসাইনকে প্রধান আসামী করে। এ ছাড়া একই মামলায় চেয়ারম্যানসহ ৭ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে আসামী করে। মামলার বাদী নাছির উদ্দিন বাদশাহ ছাত্রলীগ পেকুয়া উপজেলা শাখার সাবেক কমিটির নেতা। এ ছাড়া তার বাড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর মেহেরনামা গ্রামে। আর্জি সুত্র বাদী জানায়, ২০১৬ সালের মামলার পূর্ববর্তী সময়ে ১ নং আসামীসহ অপর আসামীরা তার কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করছিলেন। বাদী চট্রগ্রাম দক্ষিন বন বিভাগের সংরক্ষিত বনাঞ্চলে উপকারভোগী ছিলেন। বনায়ন সৃজন করতে তিনি শিলখালীতে ব্যাপক মুলধন বিনিয়োগ করেন। চাঁদা না পেয়ে আসামীরা তার বাগান থেকে বিপুল বৃক্ষ কেটে নেয়। এমনকি কাটাতারের ঘেরা নিয়ে যায়। ওই মামলায় ওই দিন শুনানী ছিল। চেয়ারম্যান আদালতে হাজিরা দেয়। এ সময় বিচারক চেয়ারম্যান নুরুল হোসাইনের জামিন না মঞ্জুর করে। তাকে জেল হাজতে প্রেরন করে। সুত্র জানায়, চেয়ারম্যান নুরুল হোসাইন পেকুয়া উপজেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির উপদেষ্টা পদে আসীন। বাদী নাসির উদ্দিন বাদশা মানবাধিকার সংগঠকও। তিনি আসক ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী পরিচালক। ছৈরভাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সহসভাপতি ও কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্য।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::