তারিখ: বৃহস্পতিবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:

পাসপোর্ট করাতে এসে গ্রেফতার এক রোহিঙ্গা ও তার সহযোগীকে তিন দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (২০ নভেম্বর) মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালত তাদের এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গ্রেফতার ওই রোহিঙ্গার নাম অহিদা (২৫)। তিনি মিয়ানমারের মংডু এলাকার ইসমাইল হোসেনের মেয়ে। তার সহযোগীর নাম মো. সিরাজুল ইসলাম (৫২)। তিনি বাকলিয়া চাক্তাই এলাকার হাজী আবুল হোসেনের ছেলে।

গ্রেফতার রোহিঙ্গা অহিদা মো. সিরাজুল ইসলামের সহযোগিতায় কাউন্সিলর ইসমাইল বালীর কাছ থেকে নাগরিকত্ব সনদ নিয়ে পাসপোর্ট করাতে এসেছিলেন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দীন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, পাসপোর্ট করাতে এসে গ্রেফতার অহিদা ও তার সহযোগী সিরাজুল ইসলামকে তিন দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালত। পাঁচলাইশ থানা পুলিশ তাদের দশ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছিল।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভুঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, বাকলিয়া চাক্তাই এলাকার মো. সিরাজুল ইসলামকে নিয়ে সঙ্গে নিয়ে পাসপোর্ট করাতে এসেছিলেন রোহিঙ্গা নাগরিক অহিদা। অহিদা পাসপোর্ট করানোর জন্য কাউন্সিলর ইসমাইল বালীর সই করা একটি নাগরিকত্ব সনদ ফাইলে জমা দিয়েছেন। সেগুলো আমরা তদন্ত করছি।

ওসি আবুল কাশেম ভুঁইয়া, অহিদা তার বাবার জাতীয় পরিচয়পত্র জমা দিয়েছেন পাসপোর্টের ফাইলে। তিনিও কীভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র পেলেন তা আমরা তদন্ত করে দেখবো। তাদের সহযোগী সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে।

Share:
error: কপি করা নিষেধ !!