শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:১৬ অপরাহ্ন

পানিবন্দী খরুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ক্যাম্পাস ; দেখার কেউ নেই !

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: জুন ২৯, ২০১৮ ২:৫৩ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: জুন ২৯, ২০১৮ ২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

আতিকুর রহমান মানিক ::
সপ্তাহব্যাপী প্রবল বর্ষনে গত পানিবন্দী হয়ে পড়েছে কক্সবাজার সদরের খরুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়। এতে স্কুলের নিয়মিত পাঠদান ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাতায়াতে অবর্ননীয় দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা জানান, সামান্য বৃষ্টি হলেই একাডেমিক ভবন, প্রশাসনিক ভবন, সংলগ্ন কে জি স্কুল ও মাঠসহ ক্যাম্পাসে পানি জমে যায়। পানি নিস্কাশনের পথ না থাকায় প্রধান সড়ক থেকে স্কুল পর্যন্ত সংযোগ সড়কটসহ স্কুল ক্যাম্পাসের পাঁচটি ভবন ও পানিবন্দী হয়ে পড়ে। এতে স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকরা চরম বিপত্তির শিকার হন। বৃষ্টিপাত কয়েকদিন স্হায়ী হলে জলাবদ্ধতা ও দূর্ভোগও স্হায়ী হয়। তাই প্রতিবছর বর্ষা এলেই আতংক নেমে আসে সংশ্লিষ্টদের মাঝে। গত এক সপ্তাহব্যাপী বৃষ্টিতেও পানিবন্দী হয়ে পড়েছে খুরুস্কুল উচ্চ বিদ্যালয়। এতে নিয়মিত পাঠদান, শ্রেণী কার্যক্রম ও অন্যান্য কর্মকান্ড ব্যাহত হচ্ছে বলে জানা গেছে।
গতকাল সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্কুলের পূর্বপাশে স্কুল ভবন, দক্ষিণে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, পশ্চিমে শরফুদ্দিন সড়ক ও উত্তরদিকে মাষ্টারপাড়ার উঁচু ভূমির কারনে চারদিকেই পানি নিস্কাশনের কোন পথ নেই। এর ফলে বৃষ্টির পানি জমে গিয়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় পানিবন্দী হয়ে পড়েছে স্কুল ক্যাম্পাস।
এলাকাবাসী জানান, এর আগে শরফুদ্দিন সড়কের পশ্চিমে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা ছিল। কিন্তু সম্প্রতি নির্মাণকাজের জন্য অপরিকল্পিতভাবে মাটি ভরাট করায় নিস্কাশন নালা বন্ধ হয়ে যায়। তাই জলাবদ্ধতা প্রকট আকার ধারন করেছে।
স্হানীয় বাসিন্দা ও সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম শামস বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই অঞ্চলের হাজার হাজার মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র ছেলে -মেয়েদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে সমাজকে নিরক্ষরমুক্ত করতে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখছে এ স্কুল। এমন গুরুত্বপূর্ন একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধানে সুশীল সমাজ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্নকর্তাদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::