শিরোনাম :
উখিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাচন কমিশনের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত চকরিয়ায় বন বিভাগের অভিযানে ৪০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, ২ একর জমি উদ্ধার ইয়াবা উদ্ধার: কক্সবাজারের ২জনসহ ৪ কারবারির ১০ বছরের কারাদণ্ড জাহাঙ্গীর মেচসহ দুই রেস্টুরেন্টকে গুনতে হলো জরিমানা কোটি টাকার ইয়াবা নিয়ে চকরিয়ার ১ নারীসহ বাঁশখালীতে ৫ জন গ্রেপ্তার টেকনাফে ৬০ হাজার ইয়াবা সহ রোহিঙ্গা আটক আকাশ সম স্বপ্ন নিয়ে কক্সবাজার শিশু হাসপাতালের উদ্যোগ নিয়েছি : জেলা প্রশাসক করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় কঠোর জেলা প্রশাসন রাজধানীর পাইকারি বাজারে কমেনি সবজির দাম উখিয়া-টেকনাফের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আর নেই
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে অপহরণ চক্রের তিন সদস্য গ্রেপ্তার

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ২৪, ২০১৮ ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ২৪, ২০১৮ ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ

আব্দুর রশিদ, বাইশারীঃ
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দোছড়ি ইউনিয়নের লংগদুর মুখ নামক স্থান থেকে গত ১৭ এপ্রিল মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তামাক চাষী সাইফুল ইসলাম (১৮) কে অপহরণের ঘটনায় জড়িত অপহরণ চক্রের সক্রিয় তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা। গত তিন দিনের টানা অভিযানের ফলে অপহরণ চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানান। গ্রেপ্তারকৃত হলো রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের বাসিন্দা মোঃ ইসমাইলের পুত্র শফিউল আলম (৩৪), উপজেলার একই ইউনিয়নের একই গ্রামের বাসিন্দা মকবুল আহামদের পুত্র নুরুল হাকিম (৩২) ও মৃত নুরুল হাকিমের পুত্র আব্দুর রশিদ (২৬)। অভিযানের নেতৃত্ব দানকারী বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সহকারী ইনচার্জ আবু মুসা বলেন, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আলী হোসেন স্যারের নির্দেশ মোতাবেক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অপহরণকারী চক্রে তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সর্বশেষ ২৪ এপ্রিল ভোর রাতে ধৃতদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শফিউল আলমকে রামু উপজেলার দূর্গম জনপদ জোয়ারিনালা ইউনিয়নের নন্দাখালী গ্রামের এক বাড়ী থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
পুলিশ জানায়, ধৃত অপহরণকারী চক্রের সদস্যরা সরাসরি তামাক চাষী সাইফুল ইসলামকে অপহরণের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এছাড়া বাইশারী ঈদগড়-ঈদগাঁও সড়ক রামু গর্জনিয়া-দোছড়ি ও বাঁকখালী থেকে বিগত দিনে অপহরণের সাথে এদের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে। অপহরণের ঘটনায় নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। যার মামলা নং- ৬, ২২/০৪/২০১৮ইং।
স্থানীয়রা জানান, বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সহকারী ইনচার্জ আবু মুসার সাহসিকতায় এলাকার লোকজন এখন কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছে। তবে অপহরণ চক্রের মূল হোতা মোঃ আনোয়ার প্রকাশ আনাইয়া ডাকাতকে গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত এলাকায় পুরাপুরি স্বস্তি ফিরবে না। এলাকার লোকজন এখনো অপহরণ আতংকে ভুগছেন। কিছুদিন থেমে থেমে চলছে এলাকায় অপহরণ বানিজ্য।
তাই এলাকার হাজার হাজার জনসাধারণ আনাইয়া ডাকাতকে গ্রেপ্তারের দাবী জানান।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::