তারিখ: বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

Share:

রিমন পালিত,বান্দরবান::

নাইক্ষ্যংছড়িতে বিপুল পরিমাণ অবৈধ উত্তোলিত পাথর জব্দ করেছে নাইক্ষ্যংছড়ি ভ্রাম্যমাণ আদালত। ১৮ জুন মঙ্গলবার বিকালে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন পাহাড়ি ঝিড়ি ঝরনা থেকে উত্তোলিত এসব পাথর জব্দ করেন প্রশাসন।

উল্লেখ্য যে, নাইক্ষ্যংছড়ির বৈদ্য ছড়া হয়ে পার্শ্ববর্তী উখিয়ার পাতাবাড়ি এলাকার রাস্তা দিয়ে প্রাচার করার উদ্দেশ্যে এসব পাথর মজুদ করে রাখা হয়েছিল।

স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও পুলিশের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে এসব পাথর জব্দ করা হয়। আর তার জন্য স্থানীয় জনসাধারণকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি সহ পুলিশের সকল কর্মকর্তাবৃন্দ।

পাথর জব্দ করার বিষয়ে জানতে চাইলে বান্দরবান নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি জানান, আমরা দীর্ঘদিন ধরে প্রচেষ্টা চালাচ্ছিলাম অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন কারী ও পাচারকারীকে আটক করার জন্য। কিন্তু তারা পাচারের জন্য নানা রকম কলা কৌশল অবলম্বন করে। তারা এক জায়গা থেকে পাথর উত্তোলন করে অন্য আরেক জায়গায় নিয়ে গিয়ে সব পাথর একত্রিত করে মজুদ করে।

তিনি আরো জানান, একটা কুচক্রী মহল দীর্ঘদিন ধরে এই প্রাকৃতিক সম্পদ পাথর কে ধ্বংস করার জন্য নানা কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে। আর আমরাও তৎপর ছিলাম তাদেরকে আটক করার বিষয়ে, কিন্তু আজ স্থানীয়দের সহায়তায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা তাদের মজুদকৃত এসব পাথর জব্দ করতে সক্ষম হয়।

আশা করছি ভবিষ্যতে যারা এই ধরনের অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করে বান্দরবানের প্রাকৃতিক সম্পদ সম্পর্কে বিনষ্ট করার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কারণ এই পাথর না থাকার কারণে আস্তে আস্তে ঢুকিয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে সকল ঝিরি ঝরণা। তার জন্য পানি সংকটে পড়ছে পাহাড়ি অঞ্চলে বসবাসরত হাজার হাজার পাহাড়ি লোকজন।

এছাড়া তিনি আরো বলেন, এইসব পাথর আমাদের বান্দরবানের প্রাকৃতিক সম্পদের একটি অংশ, আমাদের সকলের উচিত সচেতন হওয়া আর সকলে যদি বান্দরবানের প্রাকৃতিক সম্পদকে রক্ষা করার জন্য একত্রিত হয়ে কাজ করে যান তাহলে বান্দরবানের প্রাকৃতিক সম্পদ এই পাথর কে অবশ্যই রক্ষা করা যাবে।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::